অতিরিক্ত মদপানে দুজনের মৃত্যু

অতিরিক্ত মদপানে দুজনের মৃত্যু।

শরীয়তপুরের নড়িয়ায় অতিরিক্ত মদপানে মঙ্গলবার দুই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মারা যাওয়া দুজন হলেন নড়িয়া উপজেলার নন্দনসার গ্রামের রিপন হাওলাদার (৩৮) ও একই উপজেলার থিরোপাড়া গ্রামের মঞ্জুর মল্লিক (৫৫)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নড়িয়া উপজেলার নন্দনসার গ্রামের বাসিন্দা রিপন হাওলাদার চট্টগ্রামে থাকেন। সেখানে তিনি একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশার মালিক ছিলেন। গত শুক্রবার তিনি গ্রামের বাড়িতে ঘুরতে আসেন। রোববার রাতে এলাকার বন্ধুদের নন্দনসারে অটোরিকশার গ্যারেজে বসে মদপান করেন। ওই রাতে পাশের বাড়ির একটি বিয়ে অনুষ্ঠানে নাচানাচিও করেন তিনি। গভীর রাতে রিপন ও থিরোপাড়া গ্রামের মঞ্জুর মল্লিক অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে দুজনকে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে সোমবার রাতে তাঁদের শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার সকাল সাতটার দিকে রিপন হাসপাতালে মারা যান। আর উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে দুপুরে মারা যান মঞ্জুর। ময়নাতদন্তের জন্য রিপনের লাশ ওই হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

রিপনের এক স্বজন লিটন মিয়া বলেন, ‘আমার ভগ্নিপতি চট্টগ্রামে গ্যারেজের ব্যবসা করতেন। অনেক দিন পর এলাকায় বেড়াতে আসেন। কোথা থেকে কীভাবে এমন হলো, বুঝতে পারছি না। এখন বোনের দুটি সন্তানকে আমরা কী জবাব দেব?’
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মঞ্জুর মল্লিকের এক আত্মীয় বলেন, মঞ্জুর প্রবাসে থাকতেন। দেশে আসার পর তিনি কোনো কাজ করতেন না। বিভিন্ন জায়গায় আড্ডা দিয়ে বেড়াতেন। রোববার রাতে মদ পান করে অসুস্থ হওয়ার পর স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়। বেশি অসুস্থ হলে তাঁকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। উন্নত চিকিৎসা করার জন্য ঢাকা নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।
শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মুনীর আহমেদ খান বলেন, অতিরিক্ত মদ পান করে দুই ব্যক্তি অসুস্থ হলে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে হাসপাতালেই একজনের মৃত্যু হয়। অপরজনকে ঢাকায় নেওয়ার পথে মৃত্যু হয়।

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজ উদ্দিন বলেন, ‘একজন মদ পানে মারা গেছেন এমন তথ্য পেয়েছি। আরেকজনের মৃত্যু কীভাবে হয়েছে, তা পরিষ্কার নয়। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। আর লাশ দুটির ময়নাতদন্ত করা হবে। প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।’

আরও খবর
Loading...