আজ থেকে কমালো ঢাকা-দিল্লি-ব্যাংকক-কাঠমান্ডু ফ্লাইট

করোনা ভাইরাসের কারণে লোকসানের মুখে বাধ্য হয়ে ফ্লাইট কমিয়ে দিচ্ছে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন বিমান সংস্থা। ব্যাংকক রুটে আজ থেকে দৈনিক মাত্র একটি ফ্লাইট পরিচালনা করবে থাই এয়ারওয়েজ। ইউএস বাংলা চীনে ফ্লাইট তিনটি থেকে আরো কমিয়ে দেয়ার কথা ভাবছে। মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) থেকে দিল্লি, ব্যাংকক ও কাঠমান্ডুতে ফ্লাইট কমিয়ে দিচ্ছে বাংলাদেশ বিমানও।করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ভয়ে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বিদেশে ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করছে খোদ সরকার। এশিয়ার বিভিন্ন দেশে দ্রুত ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ায় এসব রুটে একদমই কমে গেছে যাত্রী। ফলে কুয়ালালামপুর, ব্যাংকক, দিল্লি ও কাঠমান্ডুতে চলতি সপ্তাহ থেকে নয়টি ফ্লাইট কমিয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

ব্যাংকক রুটে এখন থেকে প্রতিদিন দুটির পরিবর্তে একটি ফ্লাইট পরিচালনা করবে থাই এয়ারওয়েজ। সিঙ্গাপুরে আরেকটি ফ্লাইট কমিয়েছে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স।

ঢাকা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন তৌহিদ উল আহসান বলেন, চায়না সাউদার্ন এয়ারলাইন্স এরইমধ্যে বন্ধ করে দিয়েছে, চায়না ইস্টার্ন সপ্তাহে একটা বা দুটো ফ্লাইট পরিচালনা করছে। থাই এয়ারের ফ্লাইটের সংখ্যাও কমে গিয়েছে। মার্চ পর্যন্ত নাইট ফ্লাইটটা বন্ধ করেছে। ডে টা চালু রেখেছে।

বাংলাদেশ বিমানের মহাব্যবস্থাপক (এমডি) মোকাবিবর হোসেন বলেন, কাঠমান্ডু দিল্লি, কুয়ালালামপুর ও ব্যাংকক রুটে আমাদের যাত্রী ৫০ শতাংশের নিচে নেমে এসেছে। কুয়ালালামপুরে ৩টি কমানো হয়েছে, কাঠমান্ডু ও দিল্লিতে দুটো করে কমানো হয়েছে।

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে চীন থেকে বাংলাদেশে বিমান চলাচল বন্ধ রেখেছে চায়না সাউদার্ন এয়ারলাইন্স। ফ্লাইট সাতটি থেকে অর্ধেকে নামিয়ে এনেছে চায়না ইস্টার্ন। যাত্রী হার এক তৃতীয়াংশে নেমে আসায় এবার চীনের গুয়াংজুতে ফ্লাইট কমানোর কথা ভাবছে ইউএস বাংলা।

ইউএস বাংলার পিআর-জিএম কামরুল ইসলাম বলেন, যাত্রীরা দিনে দিনে কমে যাচ্ছে, প্রাথমিকভাবে আমরা ৭টা ফ্লাইট থেকে ৩টিতে নিয়ে এসেছি, সময়ের প্রেক্ষাপটে পরে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

হযরত শাহজালালে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দৈনিক ফ্লাইট কমেছে ১৫ থেকে ২০টি। কমেছে ওভার ফ্লাইয়িং। ফলে শুধু বিমান সংস্থা নয় সিভিল এভিয়েশনেরও আয় কমেছে। এয়ার ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোয়েশনের হিসাবে করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্বে বিমান পরিবহন খাতে ক্ষতি হবে তিন হাজার কোটি ডলার।

আরও খবর
Loading...