আফগানিস্তানে যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত

আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলে একটি যাত্রীবাহী উড়োজাহাজ ৮৩ জন যাত্রী নিয়ে বিধ্বস্ত হয়েছে। তবে এখনো হতাহত হওয়ার কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

রাজধানী কাবুলের দক্ষিণ-পশ্চিমে গজনি প্রদেশের দেহ ইয়াক জেলায় সোমবার স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ১০ মিনিটের দিকে উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়। সোমবার স্থানীয় গণমাধ্যমকে একথা জানিয়েছেন প্রাদেশিক সরকারের মুখপাত্র আরিফ নুরি।

বিমানটি ভেঙে পড়ার কারণ সম্পর্কে এখন পর্যন্ত কর্তপক্ষের কোনও বিবৃতি পাওয়া যায়নি। সাংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী সোমবার ১ টা ১৫ মিনিটে যাত্রা শুরু করেছিল বিমানটি। ভেঙে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে বিমানটিতে আগুন বের হতে দেখা যায় বলে স্থানীয় সূত্রে খবর। খবর পেয়ে আফগানিস্তানের স্পোশাল ফোর্সের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।

উড়োজাহাজটিতে ৮৩ জন আরোহী ছিল বলে জানিয়েছে, ‘দ্য ডেইলি মেইল’ পত্রিকা।

গজনি প্রদেশের মুখপাত্র নূরি বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, “আরিয়ানা আফগান এয়ারলাইন্সের একটি বোয়িং উড়োজাহাজ গজনির দেহ ইয়াক জেলার সাদো খেল এলাকায় বিধ্বস্ত হয়েছে।” কারিগরি ত্রুটির কারণে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে এবং এতে আগুন ধরে গেছে বলে জানান তিনি।

তবে বিবিসি’র খবরে বলা হয়েছে, উড়োজাহাজটি আরিয়ানা এয়ারলাইন্সের বলে জানানো হলেও কোম্পানিটি একথা অস্বীকার করেছে।

এদিকে সংশ্লিষ্ট এয়ারলাইন্স  কোম্পানির এক প্রতিনিধি জানিয়েছেন ,“ আরিয়ানা এয়ারলাইন্সের যে উড়োজাহাজ উড্ডয়ন করেছিল সেটি গন্তব্যে পৌঁছেছে। বিধ্বস্ত হয়নি। আর যে উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়েছে সেটি আরিয়ানা এয়ারলাইন্সের নয়।”

আরও খবর
Loading...