এবার ২৫ হাজার কর্মী ছাঁটাই করছে আমেরিকান এয়ারলাইন্স

আকাশপথে ভ্রমণ চাহিদা কমে যাওয়ার ফলে আগামী অক্টোবরের মধ্যে ২৫ হাজার কর্মী ছাঁটাই করতে যাচ্ছে আমেরিকান এয়ারলাইন্স।
করোনাভাইরাস মহামারী যে উড়োজাহাজ শিল্পে জেঁকে বসেছে, যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ এ উড়োজাহাজ সংস্থার কর্মী ছাঁটাইয়ের ঘোষণায় তা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। রয়টার্স।

আমেরিকান এয়ারলাইনসের শীর্ষ নির্বাহীরা বুধবার বলেছেন, সাময়িক ছাঁটাইয়ের সংখ্যা কম হবে যদি অধিকসংখ্যক কর্মী বাইআউট গ্রহণ করেন বা সর্বোচ্চ দুই বছর নাগাদ আংশিক বেতনসহ ছুটিতে যান। উড়োজাহাজ সংস্থাটির শীর্ষ পর্যায়ের দুই কর্মকর্তা জানান, তারা মনে করেছিলেন কোভিড-১৯ সংক্রমণ কমলে ১ অক্টোবরের পর থেকে আকাশপথে ভ্রমণের চাহিদা বাড়বে। কর্মীদের কাছে পাঠানো চিঠিতে সিইও ডাগ পার্কার ও প্রেসিডেন্ট রবার্ট আইসম লেখেন, দুঃখজনকভাবে পরিস্থিতি ভিন্ন দিকেই এগুচ্ছে।

সংক্রমণ হার বৃদ্ধি এবং বেশ কয়েকটি দেশ ফের কোয়ারেন্টিন বিধিনিষেধ আরোপের ফলে আকাশপথে ভ্রমণের চাহিদা কমছে। মার্চের শুরু থেকে এপ্রিলের মাঝামাঝি নাগাদ আকাশপথে ভ্রমণ ৯৫ শতাংশ কমেছিল। তার পর থেকে জুলাইয়ের শুরু নাগাদ আকাশপথে ভ্রমণের চাহিদা বাড়লেও বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ফের সংক্রমণের হার বৃদ্ধিতে চাহিদায় প্রভাব পড়ছে।

২০১৯ সালে আমেরিকান এয়ারলাইন্সে ১ লাখ ৩০ হাজার কর্মী কর্মরত ছিলেন। বিভিন্ন শ্রমিক ইউনিয়নের বরাতে জানা গেছে, বর্তমানে যে কর্মীদের কাছে সতর্কতামূলক বার্তা পাঠানো হয়েছে, তারমধ্যে রয়েছে ২ হাজার ৫০০ পাইলট, যা মোট পাইলটদের ১৮ শতাংশ, ৩৭ শতাংশ বা প্রায় ১০ হাজার ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট, ২২ শতাংশ বা ৩ হাজার ২০০ মেকানিকস।

চলতি সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক অন্য এক উড়োজাহাজ সংস্থা ডেল্টা এয়ার লাইন্স জানায়, তারা কর্মীদের সঙ্গে আগাম অবসরের চুক্তিতে পৌঁছার মাধ্যমে ১৭ হাজার কর্মীকে সাময়িক ছাঁটাই এড়াতে পেরেছে। ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সও তাদের ৪৫ শতাংশ কর্মী বা ৩৬ হাজার কর্মীকে সাময়িক ছাঁটাইয়ের নোটিস পাঠিয়েছে।

আরও খবর
Loading...