ওমান উপসাগরে ইসরাইলি জাহাজে বিস্ফোরণে ইরানের হাত আছে

ইসরাইলি ব্যক্তির মালিকানাধীন ওমান উপসাগরে একটি জাহাজে বিস্ফোরণের পেছনে ইরানের দিকে আঙ্গুল তুলেছেন ইসরাইলের বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

সোমবার (০১ মার্চ) ইসরাইলের গণমাধ্যম কান এর কাছে দেয়া এক সাক্ষাতকারে নেতানিয়াহু বলেন, ইরানের মদদেই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। তবে তার দাবির পক্ষে কোনও প্রমাণ দেননি।

এর আগে শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) শনিবার ইসরাইলি প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গানৎজ জানান, প্রাথমিক অনুসন্ধানে পাওয়া গেছে, জাহাজটিতে বিস্ফোরণের জন্য ইরানই দায়ী। এদিকে নেতানিয়াহুর এই অভিযোগ সরাসরি অস্বীকার করেছে ইরান।

এদিকে ওমান উপকূলে ইসরাইলি জাহাজ এমভি হিলিয়াস রেতে হামলার কথা কেউ আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকার না করলেও ইরানের একটি কট্টরপন্থি পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে– তেহরানই ওই হামলা চালিয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ওমান থেকে জাহাজটি সিঙ্গাপুর যাওয়ার পথে হঠাৎ বিস্ফোরণ ঘটে। এতে জাহাজটিতে একাধিক ফুটো হয়। মার্কিন সামরিক সূত্রে জানা গেছে, বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত হলেও জাহাজটির কোনো ক্রু হতাহত হয়নি।

রোববার ইরানের কট্টরপন্থি দৈনিক কায়হানের একটি খবরে বলা হয়, আরব উপসাগরে ইসরাইলি সেনাবাহিনীর জাহাজটি গুপ্তচরবৃত্তির কাজে ব্যবহার করা হচ্ছিল। এ কারণে এতে ইরান হামলা চালায়।

রোববার জাহাজটি দুবাইয়ের রাশিদ বন্দরে মেরামতের জন্য নিয়ে আসা হয়েছে। ইরানের সঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যের জলসীমায় নানা উত্তেজনার মধ্যে ইসরাইলি জাহাজে এই বিস্ফোরণ জল্পনা-কল্পনা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে।

আরও খবর
Loading...