কুয়েতে বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত-মৃত্যুর সংখ্যা

ছুটিতে দেশে গিয়ে আটকেপড়া প্রবাসীদের কুয়েত প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।
পরবর্তী ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত এ বিধিনিষেধ অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন দেশটির সিভিল এভিয়েশন।
যা গত ৭ ফেব্রুয়ারি কার্যকর করা হয়েছিল।

বৃহস্পতিবার কুয়েতের সিভিল এভিয়েশন মহাপরিচালকের উদ্ধৃতি দিয়ে স্থানীয় দৈনিক আরব টাইমসে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।
সম্প্রতি কুয়েতে কভিড-১৯ ভাইরাস অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পেয়ে প্রতি দিনই বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা।

এমন পরিস্থিতিতে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে করণীয় পদক্ষেপে নিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠকে করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির মন্ত্রিপরিষদ।

তবে বিদেশি কূটনীতিক, স্বাস্থ্যকর্মী ও রাষ্ট্রীয় অতিথিরা এই নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত থাকবে।
তবে কুয়েত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ‘মুনা’ প্রোগ্রামের মাধ্যমে প্রত্যক যাত্রীদের পিসিআর সনদ যাচাই-বাছাই করেই কেবল কুয়েত প্রবেশ করতে হবে।

মেডিকেল ইউটিলিটি নেটওয়ার্ক অ্যাক্রিডিটার নামে একটি নতুন প্রোগ্রাম চালু করেছে যা পিসিআর করোনাভাইরাসের পরীক্ষার সত্যতার গ্যারান্টি দেবে।

সম্প্রতি কিছু দেশ জাল পিসিআর পরীক্ষার রিপোর্ট প্রকাশের পর এই প্রোগ্রামটির আওতায় প্রায় ৩০টি দেশকে অন্তর্ভুক্ত করেছে কুয়েত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

আরও খবর
Loading...