গ্রামবাসীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টগুলোতে আসছে ভুতুড়ে টাকা!

কষ্টার্জিত টাকাই ঠিকমতো দিতে চায়না মানুষ। আর সেখানে দেখা গেল উল্টো ঘটনা।

গ্রাহকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ঢুকল অনেক অনেক টাকা। অথচ কে বা কারা এসব টাকা দিচ্ছেন তা জানা নেই ওই অ্যাকাউন্ট মালিকের। এমন কি বিষয়টি জানা নেই ব্যাংক কর্তৃপক্ষেরও।

আরও বিস্ময়ের ব্যাপার যে, একজনের বেলায় নয় কয়েকটি গ্রামের এমন অনেক গ্রামবাসীর অ্যাকাউন্টে ঢুকেছে এমন ভুতুড়ে টাকা।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রাম ২ নং পঞ্চায়েত সমিতি এলাকার শিবলুন, বেলুন, তলাড়ি সেনপাড়া,অম্বলগ্রাম,নবগ্রাম,গঙ্গাটিকুরী গ্রামে।

সোমবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে শিবলুন গ্রামের এক ব্যক্তির ব্যাংক অ্যাকাউন্টে প্রথম এই অযাচিত টাকা আসে।

ঘটনার জানাজানি হলে পরে দেখা যায় আশপাশের এমন কয়েকটি গ্রামের অনেক গ্রামবাসীর অ্যাকাউন্টে এমন টাকার যোগ হয়েছে।

এ ঘটনায় গ্রামবাসীরা যেমন উচ্ছ্বসিত তেমনই হতবাক। তারা টাকার প্রেরকের নাম বা এর উৎস জানতে উৎসুক।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম জি নিউজে প্রকাশ, দেশটির পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রাম ২ নং পঞ্চায়েত সমিতি এলাকার শিবলুন, বেলুন, তলাড়ি সেনপাড়া, অম্বলগ্রাম,নবগ্রাম, গঙ্গাটিকুরী গ্রামের বাসিন্দাদের অনেকেরই ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ১০ থেকে ২৫ হাজার টাকা ঢুকেছে।

বিষয়টি ব্যাংক কতৃপক্ষ স্বীকার করে বলেন, কোথা থেকে টাকা আসছে তার তথ্য তাদের কাছে নেই।

তবে আপাতত এ টাকাকে উপহার ভেবেই টাকা তুলতে গ্রামবাসীরা ব্যাংকে ভিড় জমাচ্ছেন।

সে বিষয়ে তারা যুক্তি দেখাচ্ছেন, দেশটির সরকার পক্ষ থেকেই এ টাকা দেওয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে কেতুগ্রামের বিধায়ক শেখ শাহনেওয়াজ মনে করেন, বেশ কয়েকদিন আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আমাদেরকে টাকা দেবে বলেছিলেন। হয়ত সেই টাকা এখন অ্যাকাউন্টে ঢুকছে।

তবে বিধায়কসহ গ্রামবাসীর এমন বক্তব্যকে নাকোচ করে দিয়ে কাটোয়ার মহকুমা শাসক সৌমেন পাল বলেন, এখনও এ বিষয়ে কিছু বলা যাচ্ছে না। বিষয়টা তদন্ত করে দেখা হবে।

আরও খবর
Loading...