চার মাসে এয়ার ইন্ডিয়ার ক্ষতি ৭২০ কোটি রুপি

চার মাসে এয়ার ইন্ডিয়ার ক্ষতি ৭২০ কোটি রুপি।

ভারতের বিমান বাহিনী গত ২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে হামলা চালালে ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে নয়াদিল্লির জন্য নিজেদের আকাশসীমা নিষিদ্ধ করে ইসলামাবাদ। এর পর থেকে গত চার মাসে এয়ার ইন্ডিয়ার ক্ষতি হয়েছে প্রায় ৭২০ কোটি রুপি। খবর: দ্য প্রিন্ট।
ভারতের সরকারি বিমান সংস্থাটির একজন কর্মকর্তা জানান, গত ফেব্রুয়ারি থেকে ইসলামাবাদ নয়াদিল্লির জন্য আকাশসীমা নিষিদ্ধ রাখায় এয়ার ইন্ডিয়ার দৈনিক ক্ষতি হচ্ছে ছয় কোটি রুপি। পাকিস্তান হয়ে বিমানের রুট ব্যবহার করতে না পারায় বহু ফ্লাইট বাতিল করতে হচ্ছে এবং বিকল্প রুটে ফ্লাইট পরিচালনা অব্যাহত রাখতে ভর্তুকিও দিতে হচ্ছে, যা এই সংস্থাকে বড় ক্ষতির মুখোমুখি করছে।
কয়েক দফায় আকাশসীমা নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ানোয় এয়ার ইন্ডিয়া ইতোমধ্যেই মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার পাকিস্তান আকাশসীমা নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ আবারও ১২ জুলাই পর্যন্ত বাড়ায়। এতে নির্দিষ্ট সময়সীমা শেষ না হওয়া পর্যন্ত পাকিস্তান হয়ে ভারতীয় কোনো বিমান চলাচল করতে পারবে না।
প্রতিবেদনমতে, গত ২৭ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে ভারত বিমান হামলা চালানোর পর থেকেই উভয় দেশ অপর দেশের জন্য আকাশসীমা বন্ধ করে দেয়। পরে মে মাসে ভারত প্রত্যাহার করলেও নিষেধাজ্ঞা বজায় রাখে পাকিস্তান। পাকিস্তানের সিভিল এভিয়েশন অথরিটির (সিএএ) এক নোটিসে বলা হয়, ভারতে আসা-যাওয়ার জন্য পাকিস্তানের ওপর দিয়ে ৯টি বিমান রুট আরও পক্ষকাল বন্ধ থাকবে। তবে দক্ষিণ পাকিস্তানের ওপর দিয়ে ভারতীয় বিমানগুলোর জন্য খুলে দেওয়া দুটি রুটে চলাচল অব্যাহত থাকবে।
২৭ ফেব্রুয়ারি বিতর্কিত কাশ্মীর অঞ্চলে ভারতীয় জঙ্গিবিমান নিয়ন্ত্রণরেখা লঙ্ঘন করলে একটিকে গুলি করে ভূপাতিত করে পাকিস্তান। তখন থেকেই পাকিস্তানের আকাশসীমা ভারতীয় বিমানগুলোর চলাচলের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়। ২৭ ফেব্রুয়ারির পর থেকে ভারতীয় বিমানগুলোকে অনেক ঘুরপথে ইউরোপ ও আমেরিকায় যেতে হচ্ছে। অনেক ঘুরপথে যেতে হয় বলে ভারতীয় বিমানের খরচ পড়ে বেশি। এতে হাজার হাজার যাত্রী ফ্লাইট বাতিল করেছে। এতে যাত্রী ও মালামাল পরিবহনের খরচ বেড়ে গেছে।

আরও খবর
Loading...