‘চিকিৎসকদের প্রতি সরকারের বক্তব্য অসম্মানজনক’

চিকিৎসকদের প্রতি সরকারের বক্তব্য ‘অসম্মানজনক’ বলে দাবি করেছে বিএনপিপন্থী চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)।

সংগঠনটির মহাসচিব ডা. মো. আব্দুস সালাম স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বুধবার এই দাবি করা হয়।

বিবৃতিতে ড্যাবের ভাষ্য, ‘বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব দেশে যে করোনাভাইরাসের মহামারি দেখা দিয়েছে, সেই প্রেক্ষাপটে ডাক্তাররাই হলেন সম্মুখযোদ্ধা। এটা অনেকটা যুদ্ধকালীন পরিস্থিতির মতো, যেখানে প্রতিটি দেশ তার দেশের ডাক্তার সম্প্রদায়কে নৈতিক, মনস্তাত্ত্বিক ও প্রায়োগিক সমর্থন যুগিয়ে যাচ্ছে। এসব সমর্থনের অসংখ্য হৃদয়গ্রাহী দৃশ্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আলোড়ন তুলেছে ও প্রশংসা কুড়িয়েছে। কোনো দেশের সশস্ত্র বাহিনী ডাক্তারদের স্যালুট দিয়েছে, কোনো দেশের হাসপাতালের আশপাশ থেকে মানুষ সমবেত কণ্ঠে ডাক্তারদের অভিবাদন জানিয়েছে।’

‘অথচ এই ঘোর ক্রান্তিকালে বাংলাদেশ ও তার সরকার ব্যতিক্রম। চীনের উহান প্রদেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপ দেখা দেয়ার পর, যথেষ্ট সময় হাতে পাওয়া সত্ত্বেও, এ দেশের সরকার ডাক্তারদের পার্সোনাল প্রোটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) সরবরাহের বিষয়ে দেখিয়েছে চরম ঔদাসীন্য। উপরন্তু, স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে একের পর এক বিমাতাসুলভ নির্দেশনা প্রচারিত হয়েছে ডাক্তারদের আত্মসম্মান ও মর্যাদার ওপর আঘাত করে। কখনো বলা হয়েছে, নিজ নিজ সুরক্ষা সরঞ্জামাদি নিজেকে জোগাড় করে নিতে; অথচ বাজারে সেসব সামগ্রীর সরবরাহ ছিল না। এরপর রোগীদের উসকানিমূলক নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, কোনো অভিযোগ থাকলে তা তাৎক্ষণিকভাবে সেনাবাহিনী বা ওসিকে অবগত করতে। ডাক্তারদের প্রতিবাদের মুখে এসব বিজ্ঞপ্তি শেষ পর্যন্ত বাতিল করতে বাধ্য হয় স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ।’

‘এ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের ডাক্তার সম্প্রদায় যখন দারুণভাবে মনঃক্ষুণ্ন, হতাশ ও অরক্ষিত, ঠিক তখনই সরকার ঘেষণা দিলেন, “যেসব চিকিৎসক সেবা দিচ্ছেন না, ভবিষ্যতে তারা চাকরি করতে পারবেন কি না, তা ভাবা হবে।” এমনকি দেশপ্রেমের সর্বনিম্ন বহিঃপ্রকাশটিকে জলাঞ্জলি দিয়ে বলা হলো প্রয়োজনে দেশের বাইরে থেকে চিকিৎসক এনে এ দেশের মানুষকে সেবা দেয়া হবে। ডাক্তারদের ন্যায্য দাবির বিপরীতে তাদের ডাক্তারির লাইসেন্স কেড়ে নেয়ার মতো হুমকি দেয়া হয়েছেন।’

‘এই পরিস্থিতিতে ডাক্তারদের স্বার্থ ও কল্যাণে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ সংগঠন, ডক্টরস অ্যাসেসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) পক্ষ থেকে আমি এই হুমকির তীব্র নিন্দা জানাই। সরকার যেখানে চিকিৎসকদের ন্যূনতম নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ, যেখানে একের পর এক ভ্রান্ত সিদ্ধান্ত ও ভুল পদক্ষেপের বলি বানানো হয়েছে নিম্নআয়ের মানুষকে, যেখানে করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণের ব্যর্থতায় ক্ষণে ক্ষণে বৃদ্ধি পাচ্ছে রোগী ও মৃত্যুর মিছিল- সেখানে দায়ভার স্বীকার না করে বরং তা চাপানো হচ্ছে সরল ও নিরীহ ডাক্তারদের ওপর’,- বলা হয় বিবৃতিতে।

আরও খবর
Loading...