NOVOAIR

চীনা মহাকাশযান ‘তিয়ানওয়েন’ মঙ্গলের ভিডিও পাঠালো

শুক্রবার চীনের মহাকাশ সংস্থা এক ভিডিও প্রকাশ করেছে যা মঙ্গল গ্রহের চারপাশে ঘূর্ণনরত মহাকাশযান থেকে পৃথিবীতে পাঠানো হয়েছে।

গত বুধবার তিয়ানওয়েন-১ নামের মহাকাশযানটি মঙ্গলের কক্ষপথে প্রবেশের দু’দিন পর এই ভিডিও পাওয়া গেল।

চীনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন সিসিটিভিতে প্রচারিত ভিডিওতে দেখা যায়, কালো মহাকাশ থেকে ধীরে ধীরে মঙ্গলের পৃষ্ঠ দৃশ্যমান হচ্ছে। ভিডিওতে গ্রহটির পৃষ্ঠের সাদা গর্ত চোখে পড়ে। মঙ্গলের চারপাশে মহাকাশ যানটি ঘোরার কারণে ভিডিওর দৃশ্য আলো থেকে অন্ধকারে পরিবর্তিত হতে দেখা যায়।

পাঁচ টনের তিয়ানওয়েন-১ গত জুলাইতে দক্ষিণ চীন থেকে উৎক্ষেপন করা হয়। তিয়ানওয়েন অর্থ ‘স্বর্গের কাছে প্রশ্ন’। এই মহাকাশযানটিতে রয়েছে একটি মার্স অরবিটার, একটি ল্যান্ডার ও একটি সৌর-শক্তি চালিত রোভার।

চীনের মহাকাশ প্রকল্পের সর্বশেষ পদক্ষেপ তিয়ানওয়েন-১। আগামী ২০২২ সালে একটি মহাকাশ স্টেশন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য রয়েছে চীনের। এছাড়া পর্যায়ক্রমে চাঁদে মানুষ পাঠানোর পরিকল্পনাও করছে দেশটি। এর মাধ্যমে আমেরিকা-চীন প্রতিযোগিতায় মহাকাশেও নিজেদের উপস্থিতি জানান দিচ্ছে চীন।

যুক্তরাষ্ট্রের একটি মহাকাশ মিশনের প্রায় একই সময়ে তিয়ানওয়েন-১ উৎক্ষেপন করা হয়। আগামী মে মাসে এটি মঙ্গলে অবতরণ করবে বলে আশা করা হচ্ছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের মহাকাশযান ‘হোপ’ মঙ্গলের কক্ষপথে প্রবেশের সপ্তাহেই চীনের মহাকাশযানের এই খবর এল।

আগামী মে মাসে তিয়ানওয়েন-১ থেকে ২৪০ কেজির একটি রোভার মঙ্গলের বিশাল বেসিন ‘ইউটোপিয়া’য় অবতরণ করবে। এর অরবিটার এক মঙ্গল বর্ষ পর্যন্ত অবস্থান করবে। গ্রহটির মাটি ও বায়ুমণ্ডল নিয়ে তিন মাসের গবেষণা ছাড়াও এই মিশনে মঙ্গলের ছবি সংগ্রহ, মানচিত্র তৈরি ও অতীত প্রাণের চিহ্নের খোঁজ করা হবে।

ইতোমধ্যেই মহাকাশযানটি মঙ্গলের একটি সাদা কালো ছবি পাঠিয়েছে যেখানে গ্রহটির ভৌগলিক উপাদান যেমন শিয়াপ্যারেলি গর্ত ও ভ্যালেস মারিনারিস নামক গিরিখাত দেখা গেছে।

 

আরও খবর
Loading...