ছয়মাসের কানাডা ফ্লাইট সিডিউল ঘোষণা এয়ার ইন্ডিয়ার

এয়ার ইন্ডিয়া আগামী ছয়ামাসের জন্য তাদের কানাডাগামী ফ্লাইটের সিডিউল ঘোষণা করেছে। আগামী বছরের ২৭ মার্চ পর্যন্ত এ সিডিউল করা হয়েছে। কোম্পানির এসব ফ্লাইট কানাডার টরেন্টো ও ভ্যানকুভারে যাতায়াত করবে।
বাবল চুক্তির আওতায় এসব ফ্লাইট চলবে। প্রথমবারের মতো এয়ার ইন্ডিয়া ছয়মাসের ফ্লাইট সিডিউল ঘোষণা করল করোনা মহামারীর মধ্যে। এয়ার ইন্ডিয়ার একটি জনপ্রিয় গন্তব্য কানাডা।
তারা আমৃতসর থেকেও কানাডায় ফ্লাইট পরিচালনা করে আসছে। ৯ অক্টোবর সিম্পল ফ্লাইং খবরটি প্রকাশ করে।
এদিকে এয়ার ইন্ডিয়া টিকিট বুকিংয়ের জন্য আহ্বান জানিয়েছে যাত্রীদের প্রতি।
দিল্লী থেকে টরেন্টো ও ভ্যানকুভারে ফ্লাইট চলবে ২৫ অক্টোবর থেকে আগামী বছরের ২৭ মার্চ পর্যন্ত। এর আগে বন্দে ভারত পরিকল্পনার আওতায় এয়ার ইন্ডিয়া সাধারণত মাসিক বা দ্বিমাসিক ফ্লাইট সিডিউল প্রকাশ করে আসছিল।
বাবল চুক্তির আওতায় যাত্রীদের জন্য কিছু সুবিধা রাখা হয়েছে।
আগে থেকে আসন বুক হয়ে গেলে ফ্লাইট ছেড়ে দেয়া হবে। সেক্ষেত্রে মাসব্যাপী অপেক্ষা করতে হবে না।
দিল্লী-টরেন্টো রুটে সপ্তাহে শনি, রোব, মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শুক্রবার ফ্লাইট চলবে।
আর দিল্লী-ভ্যানকুভার রুটে সপ্তাহে তিনদিন বুধবার, শুক্রবার ও রোববার ফ্লাইট চলাচল করবে।
উভয় রুটে কোম্পানিটি ৭৭৭-৩০০ইআর মডেলের বিমান ব্যবহার করবে।
করোনা মহামারীতে ভরতে নিয়মিত ফ্লাইট পরিচালনার সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি।
আন্তর্জাতিকভাবে যা চলছে তা এয়ার বাবল চুক্তির আওতায়। মহামারি শেষ না হওয়া পর্যন্ত নিয়মিত ফ্লাইট চালু হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। বরং এয়ার বাবলের আওতায় আরও রুট বাড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।
এভিয়েশনে কানাডা ভারতের জন্য গুরুত্বপূর্ণ মার্কেট।
আনা অ্যারোর তথ্যমতে, ভারতে চলাচলকারী ফ্লাইট কানাডার মোট ফ্লাইটের ২৫ শতাংশ। দিল্লী-টরেন্টো রুট দু’দেশের মধ্যে সবচেয়ে ব্যস্ততম রুট। এক্ষেত্রে দিল্লী-ভ্যানকুভার রুট দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। কানাডা লাভজনক মার্কেট তা বোঝার জন্য এয়ার ইন্ডিয়ার বহু অভিজ্ঞতা রয়েছে। সর্বশেষ অমৃতসর-টরোন্টো ফ্লাইট চালুর মধ্য দিয়ে তা স্পষ্ট। এয়ার ইন্ডিয়ার চালু করা করোনাপরবর্তী রুট হল ভ্যানকুভার। যাত্রী চাহিদা ভাল থাকলে এ রুটের জনপ্রিয়াতাও বাড়বে বলে তাদের প্রত্যাশা।

আরও খবর
Loading...