দেশে রেমিট্যান্স পাঠাতে সৌদি আরবে নারীরাও উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছেন

সৌদি আরবে কর্মরত অভিবাসী পুরুষদের পাশাপাশি নারীরাও দেশে রেমিট্যান্স পাঠাতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছেন। রিয়াদে নারীর সৃজনশীলতা নিয়ে প্রকাশিত ম্যাগাজিন ‘প্রস্ফুটিত’র মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন ম্যাগাজিনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক রাষ্ট্রদূতের সহধর্মিণী সৈয়দা গুলে আরজু।

রিয়াদের বাংলাদেশ হাউজে এ ম্যাগাজিনের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

শুক্রবার (৩১ জুলাই) রিয়াদের বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে ম্যাগাজিনের প্রধান সম্পাদক রিয়াদের দার আল উলুম বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগীয় প্রধান ডাক্তার ফাতেমা আখতার, পেস্ট্রি শেফ আয়েশা মারিয়াম, রিয়াদ ব্রিটিশ কাউন্সিলের প্রশিক্ষক মাবরুকা তোয়াহা, আমিনা ফাতেমা, কিং সৌদ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ডা. তাহসিনুল হক ও রিয়াদ দূতাবাসের প্রথম সচিব (প্রেস) মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

সৈয়দা গুলে আরজু বলেন, সৌদি আরবে পুরুষদের পাশাপাশি নারী গৃহকর্মীরাও দেশে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছেন। সেইসঙ্গে অনেক নারী এখানে চিকিৎসক, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ সফলভাবে বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত রয়েছে, যারা সৌদি আরবে দেশের মুখ উজ্জ্বল করছেন। নারীরা তাদের পেশার পাশাপাশি অনেকেই বিভিন্ন সৃষ্টিশীল কাজেও নিয়োজিত রয়েছে। এ ম্যাগাজিন প্রকাশের মাধ্যমে অভিবাসী নারীদের সৃষ্টিশীলতার বিভিন্ন বিষয় ফুটে উঠেছে।

ডা. ফাতেমা আখতার বলেন, সৌদি আরবে বসবাসরত অনেক অভিবাসী নারীরা বিভিন্ন সৃষ্টিশীল কাজে নিয়োজিত রয়েছেন, যা এ ম্যাগাজিনে স্থান পেয়েছে। আশা করি, ‘প্রস্ফুটিত’ ম্যাগাজিনের মাধ্যমে নারীরা অনুপ্রেরণা লাভ করবে। সেইসঙ্গে প্রবাসী নারীদের সাহিত্য চর্চায়ও এটি সহায়ক হিসেবে কাজ করবে। অভিবাসী নারীদের ব্যস্ততার মধ্যে এ ম্যাগাজিন সবাইকে সৃজনশীল কাজে উদ্দীপ্ত করবে।

এ ম্যাগাজিন থেকে কবিতা ‘প্রেমান্ধ’ আবৃত্তি করেন মাবরুকা তোয়াহা, ‘চলতি পথে ফিরে দেখা’ গল্পটি পাঠ করেন ডা. ফাতেমা, ও পাঠ করেন আয়েশা মারিয়াম। অনুষ্ঠান শেষে দেশের শান্তি, সমৃদ্ধির জন্য ও প্রবাসী সব অভিবাসীর জন্য বিশেষ দোয়া করা হয়।

আরও খবর
Loading...