নদী থেকে নিখোঁজ মাঝির লাশ উদ্ধার

নদী থেকে নিখোঁজ মাঝির লাশ উদ্ধার।

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার গোমতী নদীতে ডুবে নিখোঁজ হওয়ার দুদিন পর সাদ্দাম হোসেন (৩০) নামে এক মাঝির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নের সাতমোড়া গ্রামের গুদারাঘাট এলাকা থেকে ওই মাঝির মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

নিহত মাঝি সাদ্দাম হোসেন চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই উপজেলার রহমতাবাদ গ্রামের মৃত জেবাল হকের ছেলে।

জানা যায়, মাঝি সাদ্দাম হোসেন জেলার দাউদকান্দি থেকে বালুবাহী ট্রলার নিয়ে গোমতী নদী দিয়ে উপজেলার কোম্পানীগঞ্জে বালু নামিয়ে দাউদকান্দি ফিরছিলেন।

সোমবার রাত পৌনে ৯টার দিকে জাহাপুর ইউনিয়নের সাতমোড়া গুদারাঘাটে নৌকা পারাপারের জন্য বেঁধে রাখা রশিতে আটকে চলন্ত ট্রলার থেকে নদীতে পড়ে নিখোঁজ হন তিনি।

ট্রলারে থাকা শ্রমিকরা ঘটনাটি টের পেয়ে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার কোনো সন্ধান পাননি।

বুধবার মুরাদনগর ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ চাঁদপুর থেকে ডুবুরি দল এনে ঘটনাস্থলে উদ্ধার অভিযান চালায়। চার সদস্যের ডুবুরি দল ২ ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে নিখোঁজ মাঝি সাদ্দাম হোসেনের মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহতের বড় ভাই আনোয়ার হোসেন বলেন, আমার ছোট ভাই সাদ্দাম পাঁচ বছর ধরে বালুর ট্রলারে কাজ করে। তার সাড়ে তিন বছর ও দেড় বছরের দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে। বর্তমানে তার স্ত্রী সাত মাসের অন্তঃসত্তা। আগামী ১০ তারিখ তার বাড়ি ফেরার কথা ছিল; কিন্তু তার আগেই আমার ভাই সবাইকে কাঁদিয়ে তার আসল বাড়িতে চলে গেল।

এ ব্যাপারে মুরাদনগর থানার ওসি একেএম মনজুর আলম বলেন, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য কুমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। এ ঘটনায় দণ্ডবিধির ২৮০ ধারায় নৌ দুর্ঘটনার মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আরও খবর
Loading...