নিয়মিত ফ্লাইট বন্ধ, মালয়েশিয়ায় আটকা প্রবাসীদের দেশে ফেরার আকুতি

মহামারি করোনার প্রভাবে দীর্ঘ চার মাস উড়োজাহাজ চলাচল বন্ধ থাকায়, খাদ্যসহ নানা সংকটে পড়ে

মানবেতর জীবনযাপন করছেন প্রবাসীরা। দেশে ফেরার আকুতি জানিয়েছেন তারা। সম্প্রতি মালয়েশিয়া

থেকে বিশেষ ফ্লাইট বাংলাদেশে এলেও, সেই ফ্লাইটে দেশে আসার সুযোগ পাননি বহু বাংলাদেশি।

উন্নত জীবন আর আর্থিক স্বচ্ছলতার আশায় প্রতিবছর অসংখ্য বাংলাদেশি পাড়ি জমান দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার

দেশ মালয়েশিয়ায়। কারও কারও প্রত্যাশা পূরণ হলেও অনেকের কাছে সেই স্বপ্ন থেকে যায় অধরাই। মানবেতর

জীবন আর অমানবিক পরিশ্রমে কাটে তাদের প্রতিদিনকার জীবন।

সম্প্রতি করোনার কারণে বহু প্রবাসী বাংলাদেশি হয়ে পড়েছেন কর্মহীন। আর্থিক সংকটের কারণে খাওয়ার

খরচ জোগানোও একপ্রকার অসম্ভব হয়ে পড়েছে। এদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংকটে রয়েছেন অসুস্থরা।

মালয়েশিয়ায় ব্যয়বহুল চিকিৎসা খরচ জোগাতে না পারায় দেশে ফিরতে চান তারা।

মালয়েশিয়ায় থাকা অসুস্থ এক প্রবাসী বাংলাদেশি জানান, তার হার্ট একবার ব্লক হয়ে গেছিল। ডাক্তার বলেছে, সময় মতো তার চিকিৎসা না করাতে পারলে তিনি বাঁচবেন না। আমি সবার সাহায্য কামনা করছি।

করোনার কারণে চার মাস ধরে ফ্লাইট বন্ধ থাকায় বাংলাদেশে গিয়ে আটকা পড়েছেন হাজারও মালয়েশিয়া প্রবাসী। অন্যদিকে করোনায় বিপর্যস্ত হয়ে দেশে যাওয়ার অপেক্ষায় অসংখ্য বাংলাদেশি। বিশেষ ফ্লাইটে অল্প সংখ্যক প্রবাসী মালয়েশিয়া থেকে দেশে ফিরে যেতে পারলেও সাধারণ কর্মীরা পাচ্ছেন না সেই সুযোগ।

কমিউনিটি নেতা ও ব্যবসায়ী মো. নাজমুল ইসলাম বাবুল জানান, যারা অবৈধ তাদেরকে জরিমানা দিতে হয়। তারা এখানে বর্তমানে এখানে আটকা পড়ে আছে। হাইকমিশন ইচ্ছে করলে তাদেরকে ব্যবস্থা করতে পারবে। আমরা যতটুকু পারি সার্বিক সহযোগিতা করছি।

মালয়েশিয়ায় বর্তমানে প্রায় ১০ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশির বসবাস।

আরও খবর
Loading...