পরিকল্পিতভাবে বাংলাদেশ বিমানের টিকিটের মূল্য বৃদ্ধির অভিযোগ

পরিকল্পিতভাবে বাংলাদেশ বিমানের টিকিটের মূল্য বৃদ্ধির অভিযোগ।

পরিকল্পিতভাবে বাংলাদেশ বিমানের টিকিটের মূল্য বাড়ানোর অভিযোগ করেছেন ব্রিটিশ বাংলাদেশি ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা।

তারা বলছেন, বাংলাদেশ বিমান প্রবাসীদের কাছে প্রথম পছন্দের এয়ারলাইন্স। কিন্তু কতিপয় অসাধু কর্মকর্তার কারণে বিমানে যাত্রী হয়রানি এবং টিকিটের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করা হয়, যদিও অতিরিক্ত অর্থ দিলে ফ্লাইটের দিনেই টিকিট পাওয়া যায়।

এ সব অভিযোগ তুলে ধরে সোমবার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন অ্যাসোসিয়েশন নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সামাউন বলেন, জানুয়ারি মাসে বিশ্বের সবকটি এয়ারলাইন্স যেখানে অর্ধেক ভাড়া কমিয়ে দেয়, সেখানে বাংলাদেশ বিমান ভাড়া বাড়িয়ে তা দ্বিগুণ করে দেয়। একই সঙ্গে ব্রিটেনের হিথ্রোতে বিমানের চাহিদা অনেক বেশি থাকার পরও ম্যানচেষ্টারে ৩৬৫ সিটের তিনটি এয়ারক্রাফট দেয়া হয়েছে।

টিকিটের মূল্য সম্পর্কে তিনি বলেন, এমিরেটস এয়ারলাইন্স হিথ্রো থেকে ঢাকায় ৪৫০ পাউন্ড, আর কাতার এয়ারলাইন্স ৫০০ পাউন্ড ভাড়া নেয়; সেখানে বাংলাদেশ বিমানের টিকিটের মূল্য ক্লাস ভেদে ৯০০ পাউন্ড থেকে ৩১০০ পাউন্ড রাখা হয়েছে; এতে যাত্রীরা হয়রানির শিকার হচ্ছে এবং বাড়তি টাকা দিচ্ছে।’

মোহাম্মদ সামাউন দাবি করেন, জানুয়ারি মাসে তার পরিবারের ১৫ সদস্য বাংলাদেশ বিমানে করে দেশে আসতে চান। বিমান অফিসে যোগাযোগ করা হলে বলা হয় মার্চ মাস পর্যন্ত টিকেট নেই। ট্রাভেল এজেন্টের সঙ্গে যোগাযোগ করলে হলে বলা হয়, ইকোনমি ক্লাসের টিকেট নেই, বিজনেস ক্লাসের টিকেট আছে। এমন ঘটনা ঘটেছে অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল মোসাহিদ ও সহ-সভাপতি মো. আব্দুল হান্নানসহ অনেক যাত্রীরা ক্ষেত্রে।

তিনি বলেন,  বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে বিমান অবদান রাখছে। অসাধু দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের জন্য বিমান বারবার সমালোচনার মুখে পড়ছে এবং অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। টিকিট চাইলে বলা হয় নেই; অথচ বিমানে উঠলে দেখা যায় সিট খালি। তবে ঘুষ দিলে একদিন আগের টিকিটও মেলে। এসব হয়রানির কারণে নতুন প্রজন্ম দেশবিমুখ হয়ে পড়ছেন বলে দাবি করেন তিনি।

নতুন প্রজন্মের কথা চিন্তা করে বিমানের সেবার মান বাড়ানোর দাবি জানান তিনি। একই সঙ্গে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দ্রুততম সময়ের মধ্যে পূর্ণাঙ্গরুপে আন্তর্জাতিকমানের বিমানবন্দরে উন্নীত করার দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি মকসুদ ইবনে আজিজ লামা, সহ-সভাপতি মো. আব্দুল হান্নান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মুসাহিদ প্রমুখ।

আরও খবর
Loading...