ফ্লাইং লাইসেন্স সন্দেহজনক হওয়ায় নিষিদ্ধ হচ্ছে ২৬২ পাকিস্তানি পাইলট

পাকিস্তানের বিমানমন্ত্রী গোলাম সারোয়ার খান বলেন, পাকিস্তানের ৮৬০ পাইলটের মধ্যে অনুসন্ধানে ২৬২ পাইলটের ফ্লাইং লাইসেন্স সন্দেহজনক হওয়ায় অবিলম্বে তাদের নিষিদ্ধ করা হচ্ছে।

এদিকে পাকিস্তান আন্তর্জাতিক এয়ারলাইন্সের (পিআইএ) ৪২৬ পাইলটের মধ্যে প্রায় ১৫০ পাইলটকে নিষিদ্ধ করা হচ্ছে।

অনুসন্ধানে তাদের লাইসেন্স সন্দেহজনক হওয়ায় এ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির মুখপাত্র। খবর এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

বিমানমন্ত্রী গোলাম সারোয়ার খান জানিয়েছেন, সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এসব পাইলটদের বিরুদ্ধে কারণ দর্শানো নোটিশ ও অভিযোগপত্র দেয়া হবে যাতে কোনো বিমান পরিচালনা করতে না পারে।

ইসলামাবাদে গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, এসব পাইলটদের লাইসেন্স সন্দেহজনক। কিছু পাইলটের কোনো প্রকার কাগজের উপস্থিতি নেই, কিন্তু তারা লাইসেন্স সংগ্রহ করেছিলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, ভুয়া লাইসেন্স নিয়ে পাইলটদের বিরুদ্ধেও ফৌজদারি কার্যক্রম শুরু করা হবে। সরকার কোনো নাগরিকের জীবন ঝুঁকিতে ফেলতে পারে না।

গত ২২ মে পাকিস্তান আন্তর্জাতিক এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট এ৩২০ দুর্ঘটনায় পতিত হয়। এতে দুইজন বেঁচে ফিরলেও অন্য সবাই নিহত হন।

পাকিস্তানে বিমান দুর্ঘটনায় প্রাথমিক তদন্তের পরে সংসদে বিষয়টি উপস্থাপন করেন বিমানমন্ত্রী। এ সময় মন্ত্রী জাতীয় বিমান সস্থার অনিয়মের কথা তুলে ধরেন।

আরও খবর
Loading...