ফ্লাইটে বাড়ছে যৌন নির্যাতনের ঘটনা

ফ্লাইটে বাড়ছে যৌন নির্যাতনের ঘটনা।

যাত্রীবাহী ফ্লাইটে যৌন নির্যাতনের ঘটনা বাড়ছে। পীড়ন ও হয়রানির অভিযোগে ফ্লাইটে এখন সতর্ক থাকতে হচ্ছে যাত্রীদের।
এফবিআইয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, আমেরিকায় ২০১৪ সালে ফ্লাইটে যৌন হয়রানির ৩৮টি ঘটনা রিপোর্ট করা হয়। প্রতি বছরই এ সংখ্যা বাড়ছে। অনেকেই মনে করছেন, ফ্লাইটে যাত্রী পীড়নের অধিকাংশ ঘটনাই এড়িয়ে যাওয়া হয়।
সম্প্রতি এক ব্রিটিশ নারীকে যৌন নির্যাতনের দায়ে ভারতীয় পর্যটকের ১২ মাসের জেল হয়েছে। মুম্বাই থেকে ম্যানচেস্টারগামী ফ্লাইটে একজন ব্রিটিশ নারীকে যৌন নির্যাতনের দায়ে ভারতীয় নাগরিক হারদীপ সিংয়ের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। হারদীপ নিজের দোষ স্বীকার করেছেন। হারদীপ সিংয়ের জন্ম ভারতের হোসিশপুরে। ২২ ফেব্রুয়ারি ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টার বিমানবন্দরে অবতরণ করার পর তাঁকে আটক করা হয়।
বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, হারদীপ তাঁর পাশের সিটে থাকা নারীদের দীর্ঘদিন ধরে যৌন নির্যাতন করে আসছিলেন। এর মধ্যে ২০ জন নারী তাঁর দারা নির্যাতনদের শিকার হন বলে পুলিশকে রিপোর্ট করেন। বিমান পুলিশের তথ্যমতে, হারদীপ দীর্ঘদিন ধরে ফ্লাইটে যাত্রা পথে নারীদের যৌন নির্যাতন করে আসছিলেন।
বিবিসি নিউজ জানায়, কেবিনের লাইট বন্ধ করে যখন অন্যান্য যাত্রী ঘুমিয়ে ছিলেন তখন হারদীপ নারী যাত্রীর পোশাকের নিচে হাত দেওয়ার চেষ্টা করেন এবং জোর করে চুম্বন করার চেষ্টা করেছেন।
পুলিশ জানায়, হারদীপ প্রায় ১৫ মিনিট ধরে পাশের নারী যাত্রীকে যৌন হয়রানি করেন। গ্রেটার ম্যানচেস্টার পুলিশের ডিটেকটিভ কনস্টেবল ক্যাথরিন ইয়ানস বলেন, ‘ফ্লাইটের শুরু থেকে সিংয়ের আচরণ অবমাননাকর ছিল।’ গত সপ্তাহে সিংকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে গ্রেপ্তার ও এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।
নির্যাতনের শিকার অনেকেই বলেছেন, আকাশে ফ্লাইট থাকা অবস্থায় পীড়নের শিকার হলে দীর্ঘ ফ্লাইটের ল্যান্ডিং পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়। যাত্রীদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, অনেক এয়ারলাইন তাঁদের ক্রুদের পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণ দিচ্ছে না। তবে আমেরিকার বিমান সংস্থাগুলো এখন ক্রুদের এ নিয়ে অতিরিক্ত প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। পাশাপাশি যাত্রীদের জন্যও চোখ কান খোলা রাখা, সন্দেহ হলে অপেক্ষা না করেই আত্মরক্ষার কৌশল নেওয়াসহ নানা নির্দেশনাবলি দিয়ে সতর্কবার্তাও দিয়েছে এফবিআই।

আরও খবর
Loading...