ফ্লাইট চালু হলে কমবে বিমানভাড়া

করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে বিশ্বের অধিকাংশ দেশেই যাত্রীবাহী প্লেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। এরইমধ্যে সতর্ক করে বলা হয়েছে, ফ্লাইট আবার চালু হলে প্রথমে প্লেনভাড়া কমলেও পরবর্তীকালে সেটি অন্তত ৫০ শতাংশ বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশন (আইএটিএ) জানায়, প্লেন ফের চালু করতে আগ্রহী এয়ারলাইনগুলো। সে তুলনায় যাত্রী কম থাকায়, ভাড়া কমতে পারে। তবে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হলে প্লেনে মাঝখানের আসন খালি রাখতে বাধ্য হলে, এয়ারলাইনগুলো ভাড়া বাড়াতে বাধ্য হবে।

বর্তমানে সামাজিক দূরত্বের যে নির্দেশনাগুলো রয়েছে, তা মানতে হলে মাঝের আসন ফাঁকা রাখতে হবে। এতে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে কম যাত্রী নিয়ে চলাচল করতে বাধ্য হবে এয়ারলাইনগুলো।

আইএটিএর পূর্বাভাস অনুযায়ী, ১২২টি এয়ারলাইনের মধ্যে মাত্র ৪টি এ পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারবে। ওই চারটি এয়ারলাইনেরও আর্থিক লাভ হবে না, শুধু খরচটুকু উঠে আসবে। বাকি এয়ারলাইনগুলোর লোকসান হবে। এ অবস্থায় ফ্লাইট চালু রাখতে হলে ভাড়া বাড়াতেই হবে।

যাত্রী না থাকায় এবং বেশিরভাগ ফ্লাইট বন্ধ থাকায় ইতোমধ্যে লোকসান গুনছে এয়ারলাইনগুলো।

আরও খবর
Loading...