বাংলাদেশিদের জন্য ফ্লাইটের নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে ইতালি

বাংলাদেশিদের জন্য আকাশপথে যাতায়াতের নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে ইতালি। বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) এক বার্তায় এই সুখবর দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে অনেক ইতালি প্রবাসী ছুটিতে দেশে এসে ৮-১০ মাস ধরে আটকা পড়ে আছেন। তাদের জন্য অবশেষে কিছুটা হলেও স্বস্তির খবর এসেছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন, ইতালিতে যেসব বাংলাদেশির থাকার বৈধ অনুমতিপত্রের মেয়াদ আছে, তারাই শুধু দেশটিতে যেতে পারবেন। আর যাদের বৈধ অবস্থানের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে তাদের পুনরায় ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে।’

ইতালিয়ান পুলিশের যাচাই-বাছাইয়ের পর আবেদনকারীদের ভিসা দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে পুলিশ যেন দ্রুত তাদের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে সেজন্য বাংলাদেশে ইতালির রাষ্ট্রদূত আশ্বস্ত করেছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে। তবে ইতালি এখনও নতুন ভিসার প্রদানের আবেদন প্রক্রিয়া শুরু করেনি।

এদিকে ইতালি প্রবাসীরা কাজে ফেরার দাবিতে গত ১১ অক্টোবর ঢাকার গুলশানে ইতালি দূতাবাসের সামনে মানববন্ধন করেন। ভিসার মেয়াদ বৃদ্ধি ও ফ্লাইট চালুর দাবি জানান তারা। কয়েক মাস আটকে পড়ায় অনেকের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। আয়হীন সময় কাটিয়ে অনেকেই ঋণগ্রস্ত।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) নীতিমালা অনুসরণ করে গত ১৬ জুন থেকে সীমিত পরিসরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট শুরু হয়। কাতার এয়ারওয়েজ বাংলাদেশ থেকে কাতার হয়ে বিভিন্ন দেশে যাত্রীদের নিয়ে যায়। এরমধ্যে অন্যতম গন্তব্য ছিল ইতালি। গত ৬ জুলাই বাংলাদেশ থেকে রোমে যাওয়া একটি ফ্লাইটের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক যাত্রীর শরীরে কোভিড-১৯ রোগের উপসর্গ ধরা পড়ে। এতে বাংলাদেশের সঙ্গে সব ধরনের ফ্লাইট বাতিলের ঘোষণা দেয় ইতালি। এরপর ৮ জুন বাংলাদেশ থেকে কাতার হয়ে ইতালিতে যাওয়া দুটি ফ্লাইটের ১৬৮ বাংলাদেশিকে ফিরিয়ে দেয় দেশটি।

আরও খবর
Loading...