বাধ্য হয়েই চড়া দামে টিকেট কিনছেন প্রবাসীরা

করোনাভাইরাসের কারণে বিভিন্ন বিমানসংস্থার টিকেটের দাম বেড়েছে কয়েক গুন। ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ায় বাধ্য হয়েই চড়া দামে টিকেট কিনতে হচ্ছে প্রবাসীদের। বিমানসংস্থাগুলোর দাবি, স্বাস্থ্যবিধি মেনে উড়োজাহাজে আগের মতো যাত্রী নিতে না পরায় টিকেটের দাম বাড়াতে হয়েছে।

করোনারর প্রর্দুভাবে ২ মাসেরও বেশি সময় বন্ধ ছিল আন্তর্জাতিক ফ্লাইট।
জুন মাস থেকে সীমিত আকারে বিমান চলাচল শুরু হলেও বিভিন্ন এয়ারলাইন্সের টিকিটের দাম বেড়েছে।
দেশী বিদেশী সব এয়ারলাইন্সই ৫ থেকে ১০ গুন বেশী ভাড়া নিচ্ছে বলে অভিযোগ যাত্রীদের।
ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়া কিংবা চাকরী হারনোর ভয়ে বাধ্য হয়েই বেশী দামে টিকেট কিনছেন প্রবাসীরা।

সমাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে প্রতিটি ফ্লাইটে প্রায় ৩৫ শতাংশ কম যাত্রী বহন করতে হচ্ছে।
তাই টিকেটের দাম কিছুটা বাড়াতে হয়েছে উল্লেখ করে বিমান বাংলাদেশ এয়ারল্যাইন্স’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোকাব্বির হোসেন বলেন, ‘কিছুটা দাম আমাদের বাড়াতে হয়েছে।
যেমন কুয়েতে ১০০ বেশি যাত্রী নেওয়ার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দেশটির প্রশাসন।
সেক্ষেত্রে তো আমাদের খরচ বিবেচনাও করতে হবে।’

তবে আকাশ যোগাযোগ স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরলে আগের ভাড়ায় ফিরে আসা সম্ভব বলেই জানাচ্ছে এয়ারলাইন্সগুলো।

আরও খবর
Loading...