NOVOAIR

বিটিআরসি মোবাইল সেবার মান নজরদারিতে মাঠে নামবে, থাকবে ৬ মাস

টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি মোবাইল ফোন অপারেটরদের সেবার মান নজরদারিতে দেশের বিভিন্ন এলাকায় ‘ড্রাইভ টেস্ট’ চালাতে মাঠে নেমেছে।

দেশের প্রায় ৩০০টি উপজেলায় জানুয়ারি থেকে ৬ মাস ধরে এ কার্যক্রম চলবে। ২০ হাজার কিলোমিটারের বেশি এলাকায় এ ‘ড্রাইভ টেস্ট’ পরিচালনা করবে নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

বিটিআরসির উপ পরিচালক (গণমাধ্যম) জাকির হোসেন খান মঙ্গলবার গণমাধ্যমকে বলেন, “এ প্রক্রিয়ায় যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে বিটিআরসি কলড্রপ, রিসিভ লেভেল, কল সেটআপ টাইম, কল সাকসেস রেটসহ মোবাইল ফোন সেবার গুণগত মানগুলো নজরদারি করে একটি প্রতিবেদন তৈরি করবে।”

সূচকের সঙ্গে অপারেটরদের সেবার মান সন্তোষজনক না হলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি। এর আগে ২০১৭ সালে ও ২০১৯ সালে এ ধরনের ড্রাইভ টেস্ট করেছিল বিটিআরসি।

দেশে ইন্টারনেট গ্রাহক সংখ্যা বাড়লেও গ্রাহকরা প্রায়ই উচ্চমূল্যের পাশাপাশি ইন্টারনেট ধীরগতি, নেটওয়ার্ক সমস্যা, সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া ও ব্যবহারের চেয়ে বেশি টাকা কেটে নেওয়াসহ নানা বিষয়ে অভিযোগ করে আসছে। মোবাইল অপারেটরদের বিষয়ে গত ১১ মাসে সাড়ে ৫ লাখ অভিযোগ দেয় গ্রাহকরা। এসব অভিযোগের ৯৮ শতাংশ সুরাহাও করেছে বিটিআরসি।

বিটিআরসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে মোবাইল ইন্টারনেট গ্রাহক সংখ্যা ছিল ৯ কোটি ৩৬ লাখ ৮১ হাজার। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে এ সংখ্যা বেড়ে হয় ১০ কোটি ২৩ লাখ ৫৩ হাজার।

গত এক বছরে বিটিআরসির হিসাবে মোবাইল ফোনের গ্রাহকই বেড়েছে ৪৫ লাখ ৬৫ হাজারের বেশি।

দেশে গত ডিসেম্বর শেষে মোবাইল ফোন সংযোগ ছিল ১৭ কোটি এক লাখ ৩৭ হাজার। এর মধ্যে গ্রামীণফোনের ৭ কোটি ৯০ লাখ ৩৭ হাজার, রবির ৫ কোটি ৯ লাখ ১ হাজার, বাংলালিংকের ৩ কোটি ৫২৩ লাখ ৭২ হাজার ও টেলিটকের ৪৯ লাখ ২৭ হাজার।

আরও খবর
Loading...