বিমানবন্দরের মধ্যে নারী যাত্রীদের পোশাক খোলায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া

কাতারের দোহা থেকে সিডনি ফেরার পথে কাতার এয়ারওয়েজের নারী যাত্রীরা অবমাননাকর আচরণের মুখোমুখি হয়েছেন।
১৩ জন যাত্রীর প্রত্যেকের পরনের পোশাক খুলে পরীক্ষা করে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।
এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়া কর্তৃপক্ষ।

এ মাসের শুরুর দিকে দোহার হামাদ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টের টার্মিনালের টয়লেট থেকে এক নবজাতকে উদ্ধার করা হয়।
নবজাতকের পরিচয় উদঘাটনের জন্য কাতার এয়ারওয়েজের ওই ফ্লাইটের নারী যাত্রীদের পোশাক খুলে পরীক্ষা করা হয় কেউ সদ্য সন্তান জন্ম দিয়েছেন কি না।
এসময় তাদের পাসপোর্টও জমা রাখা হয় বলে খবর প্রকাশ করেছে নিউ ইয়র্ক টাইমস।

প্রত্যক্ষদর্শীরা অস্ট্রেলিয়ান মিডিয়াকে বলেন, প্লেনে ওঠার পর হঠাৎ ঘোষণা দিয়ে প্লেন থেকে নামিয়ে অ্যাম্বুলেন্সে করে তাদের দোহার বিমানবন্দর টারমাকে নিয়ে যাওয়া হয়।
পরে তাদের মধ্যে কেউ সন্তান জন্ম দিয়েছেন কি না দেখতে অন্তত তিন ঘণ্টা ধরে শারীরিক পরীক্ষা করা হয়।

অস্ট্রেলিয়ান ব্রডকাস্টিং করপোরেশনকে উলফগ্যাং বাবেক নামের এক যাত্রী জানান, ফিরে আসার পর ওই নারী যাত্রীদের মন খারাপ থাকতে দেখেছেন।
এমনকি একজন অল্পবয়েসী মেয়ে কাঁদছিল।

এ ঘটনায় অস্ট্রেলিয়া জুড়ে ক্ষোভ আর অবিশ্বাসের ঢেউ বয়ে যাচ্ছে।

 

 

আরও খবর
Loading...