NOVOAIR

মঙ্গল গ্রহে উড়বে ড্রোন হেলিকপ্টার

হেলিকপ্টার অবতরণ করবে লাল গ্রহ মঙ্গলে। গত বছর মঙ্গলে ‘ইনজেনুইটি’ নামে একটি মহাকাশযান পাঠানো হয়েছিল।

যানটি আগামীকাল মঙ্গলপৃষ্ঠে অবতরণ করতে পারে। এটি আসলে দেখতে ছোট আকারের ড্রোনের মতো। ওজন ১ দশমিক ৮ কিলোগ্রাম। মঙ্গলে গ্যাসের স্তর পাতলা এবং সেখানে বৈরী আবহাওয়া থাকার কারণে অভিযানটি সফল করতে অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে।

হেলিকপ্টারটিতে চারটি কার্বন ফাইবার পাখা রয়েছে। পাখাগুলো অনেক বেশি বড় এবং সাধারণ হেলিকপ্টারের পাঁচগুণ বেশি দ্রুত ঘোরে, প্রতি মিনিটে ২ হাজার ৪০০ বার। মহাকাশযানটি মঙ্গলের উপযোগী করে তৈরি করা হয়েছে। ইনজেনুইটির চারটি পা রয়েছে। যানটির মূল কাঠামো বাক্সের মতো দেখতে। এতে দুটি ক্যামেরা, কম্পিউটার ও দিকনির্দেশনার (নেভিগেশন) সেন্সর রয়েছে।

মঙ্গলে রাতের পরিবেশ অনেক ঠাণ্ডা থাকে। ওই সময় তাপমাত্রা মাইনাস ৯০ ডিগি সেলসিয়াসের নিচে নেমে যায়। তাই যন্ত্রটি সচল রাখতে রাতে অনেক বেশি জ্বালানি শক্তির প্রয়োজন হয়। সে জন্য ব্যাটারি রিচার্জ করতে মহাকাশযানটিতে সোলার সেল লাগানো রয়েছে। হেলিকপ্টারটি পারসিভারেন্স রোভারের ভেতরে করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

রোভারটি মঙ্গলপৃষ্ঠে নামার পর হেলিকপ্টারটি ওড়ানোর চেষ্টা করা হবে। ইনজেনুইটিকে ১০ থেকে ১৫ ফুট উঁচু দিয়ে ওড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে। এটি সর্বোচ্চ ১৬০ ফুট (৫০ মিটার) ভ্রমণ করবে। এর পর আবার ভ্রমণ শুরুর স্থানে ফিরবে। প্রতিটি ফ্লাইটের জন্য সময় লাগবে দেড় মিনিট।

আরও খবর
Loading...