‘মন্ত্রী দিয়ে ফোন করাবেন না, কারো প্রভাবে কাজ হবে না’

নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইনান্সিয়াল সার্ভিসেস (পিএলএফএস) লিমিটেডের ঋণগ্রহীতাদের সতর্ক করে দিয়েছেন হাইকোর্ট বিভাগ।
আদালত বলেছেন, আপনারা পিপলস লিজিং থেকে টাকা নিয়েছেন।
টাকা নিয়ে আপনারা বসে আছেন।
এই টাকা চোর বাটপারদের টাকা না।
এটা জনগণের টাকা।
আর যারা টাকা রেখেছে সেই সব সাধারণ মানুষ রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছে।
আগে টাকা দিন। প্রতিষ্ঠানটিকে বাচাঁতে হবে।
আগে টাকা দিবেন তারপর আলোচনা, দরকষাকষি।
টাকা না দিলে জেলে যেতে হবে।

আরেফীন শামসুল আলামীন নামের একজন ঋণগ্রহীতা আদালতে বলেন, আমার জন্য একশ ৬০ কোটি টাকা বরাদ্দ ছিল।
কিন্তু পিপলস লিজিং আমার কাছে ৩৮৪ কোটি টাকা দাবি করছে।
আমি প্রতিমাসে ২০ লাখ টাকা কিস্তি দিতাম।
গত ২৪ মাস কোনো কিস্তি দেইনা।
এসময় আদালত এই ব্যবসায়ীর আত্মীয়স্বজনের পরিচয় তুলে ধরে বলেন, মন্ত্রী দিয়ে ফোন করাবেন না।
মন্ত্রী বা কারো প্রভাবে কাজ হবে না।
আইনের মধ্যে থেকে কাজ করতে হবে।
আপনারা আইনের মধ্যে পড়ে গেছেন।
আগামী তারিখের আগেই একটা কিস্তির টাকা দিয়ে আসুন।
এরপর কথা বলুন। আদালত বলেন, আপনাদের প্রথম দায়িত্ব টাকা দেওয়া।
এরপর কে কত টাকা কবে কিভাবে দেবে সে ব্যাপারে আলোচনা হবে।

আরও খবর
Loading...