মহাত্মা গান্ধীর সবরমতি আশ্রমে গিয়ে গান্ধীকেই ভুলে গেলেন ট্রাম্প

আশ্রমের স্মারক বইতে কিছুই লেখেননি তিনি

ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের প্রাণপুরুষ মহাত্মা গান্ধীর সবরমতি আশ্রমে গিয়ে গান্ধীকেই ভুলে গেলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আশ্রমের স্মারক বইতে গান্ধীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে কিছুই লেখেননি তিনি।

সোমবার দুই দিনের সরকারি সফরে ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ও কন্যা ইভাঙ্কাসহ পরিবারের সদস্য ও শতাধিক সফরসঙ্গী নিয়ে ভারতে গেছেন ট্রাম্প।

গুজরাটের আহমেদাবাদে সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল বিমানবন্দরে নেমে সেখানে থেকে মোদির সঙ্গে মহাত্মা গান্ধীর স্মৃতি বিজড়িত সবরমতি আশ্রমে যান তিনি। এ আশ্রমে গুজরাটে জন্মগ্রহণকারী মহাত্মা গান্ধী ১৩ বছর বসবাস করেছিলেন।

‘অপূর্ব সফর’র জন্য ‘মহান বন্ধু প্রধানমন্ত্রী মোদিকে’ ধন্যবাদ দিলেন। আশ্রমের স্মারক বইতে গান্ধীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে কিছুই লেখেননি ট্রাম্প। এতেই ক্ষেপেছেন ভারতীয় নেটিজেনরা। অনেকেই বলছেন, আমাদের মহান নেতাকে অপমান করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

এখানে ট্রাম্প ও মেলানিয়া হাত দিয়ে চরকা কাটার চেষ্টা করেন। ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের সময় গান্ধী বিদেশি কাপড়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হিসেবে চরকা কেটে কাপড় বোনার এ ধারাটি জনপ্রিয় করে তুলেছিলেন। তারপর থেকে এ চরকা ভারতের অন্যতম জাতীয় প্রতীকে পরিণত হয়।

মোদি ট্রাম্পকে সবরমতি আশ্রমের বিভিন্ন অংশ ঘুরে দেখান। তাদের চারকার ইতিহাস অবহিত করেন। গান্ধীর স্মারকচিহ্ন হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টকে ‘তিন জ্ঞানী বানর’ এর মার্বেল মূর্তি উপহার দেন।

আশ্রমে মহাত্মা গান্ধীর একটি ছবিতে ফুলের মালা দেন ট্রাম্প ও মেলানিয়া। কিন্তু স্মারক বইতে লেখা মন্তব্যে গান্ধীর বিষয়ে কোনো মন্তব্যই করেননি ট্রাম্প।

তিনি লেখেন, অপূর্ব সফরের জন্য বন্ধু নরেন্দ্র মোদিকে ধন্যবাদ।

২০১০ সালে ভারত সফরের সময় এই আশ্রম পরিদর্শনে এসে ওবামা লিখেছিলেন, গান্ধীর জীবনের এসব স্মারক দেখার সুযোগ পেয়ে আশা ও অনুপ্রেরণায় পূর্ণ হয়েছি আমি। তিনি শুধু ভারতের নায়ক ছিলেন না, পুরো বিশ্বের নায়ক ছিলেন।

আরও খবর
Loading...