মিয়ানমারে নারীদের ‘লুঙ্গি-অন্তর্বাস ব্যারিকেড’ আন্দোলন

বর্তমানে মিয়ানমানজুড়ে চলছে বিক্ষোভ।
গত ১ ফেব্রুয়ারি অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করে দেশটির সেনাবাহিনী।
গৃহবন্দি করা হয় ক্ষমতাসীন দলের নেতা অং সান সু চি ও প্রেসিডেন্ট উইন মিন্টকে।
এরপর থেকেই রাস্তায় নেমে এসেছে দেশটির সাধারণ জনগণ।
তারা রাজপথে অভুত্থানবিরোধী কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলেছে।
ইতোমধ্যে আন্দোলনকারীদের ওপর চড়াও হয়েছে দেশটির আইনশঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।
তাদের গুলিতে এরই মধ্যে ৫০ জনের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে দেশটিতে।

এই অবস্থায় সেনা-পুলিশ ঠেকাতে অভিনব কৌশল বেছে নিয়েছেন মিয়ানমারের নারীরা।
সেনা ও পুলিশের গতিরোধে পথে পথে বসিয়েছেন ব্যারিকেড।
আর তাতে ব্যবহৃত হচ্ছে নারীদের পরনের লুঙ্গি-অন্তর্বাস!

লুঙ্গি মিয়ানমারের নারীদের ঐতিহ্যবাহী পোশাক।
চলমান আন্দোলনে সেনা ও পুলিশের অস্ত্রের বিরুদ্ধে লুঙ্গি ব্যবহার করা হচ্ছে।
লুঙ্গির সঙ্গে পথের ব্যারিকেডে শোভা পাচ্ছে নারীদের স্কার্ট, পাজামাসহ রংবেরঙের নানান পোশাক। মূলত শরীরের নিচের অংশে ব্যবহার হওয়া পোশাক ব্যারিকেডে ব্যবহার হচ্ছে।
সেনা চলাচলের পথগুলোয় আড়াআড়ি রশি বেঁধে সেখানে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে এসব পোশাক।
এমনকি পথের মধ্যে ফেলে রাখা হয়েছে নারীদের পোশাক। এতে কাজও হচ্ছে।
অনেক এলাকা মাড়াচ্ছেন না নিরাপত্তা বাহিনীর লোকজন।

আরও খবর
Loading...