মুজিববর্ষে বিশেষ সেবাপক্ষ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের

মুজিববর্ষে বিশেষ সেবাপক্ষ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের।

এ বছর স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে দেশে পালিত হবে ‘মুজিববর্ষ’। সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও সরকার ঘোষিত এ কর্মসূচি বাস্তবায়নে নানা উদ্যোগ হাতে নিয়েছে। রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের পক্ষ থেকেও নেওয়া হয়েছে কর্মপরিকল্পনা। টিকিটে ছাড়, বিশেষ সেবাপক্ষ পালন, বঙ্গবন্ধুর ওপর নির্মিত তথ্যচিত্র প্রদর্শনসহ নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে রাষ্ট্রীয় এই এয়ারলাইনস।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে সরকার এ বছরকে মুজিববর্ষ হিসেবে ঘোষণা করেছে। জাতির জনকের জন্মদিন ১৭ মার্চ থেকে মুজিববর্ষের কর্মসূচি শুরু হয়ে চলবে ২০২১ সালের ২৬ মার্চ পর্যন্ত। মুজিববর্ষের সঙ্গে সঙ্গে ২০২১ সালে স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সুবর্ণজয়ন্তীর কর্মসূচিও পালন করা হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস ১০ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে মুজিববর্ষের ক্ষণগণনা।

বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মো. মোকাব্বির হোসেন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে সরকার ঘোষিত মুজিববর্ষ পালনে বিমানের পক্ষ থেকে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে অন্যতম হচ্ছে—টিকিটে ১৭ শতাংশ ছাড় দেওয়া হবে। এছাড়া, ইন ফ্লাইট এন্টারটেইনমেন্টে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ভিডিও প্রদর্শন করা হবে। এর বাইরে সরকারের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে বেশ কিছু কর্মসূচি পালন করা হবে।’

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস সূত্রে জানা গেছে, ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে আটটি কর্মপরিকল্পনা তৈরি করা হয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে—এ বছরের মার্চ থেকে ২০২১ সালের মার্চ পর্যন্ত প্রতিমাসের ১৭ তারিখে ১৭টি রুটের টিকিটে ১৭ জন যাত্রীকে ১৭ শতাংশ ছাড় দেওয়া হবে। তবে এ সুবিধা শুধু বিমানের ওয়েবসাইটে টিকিট ক্রয়ের ক্ষেত্রে এবং আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে ১৭ জন এই টিকিট পাবেন। কর্মসূচির মধ্যে আরও রয়েছে, মুজিববর্ষের লোগো ও ছবি বিমানের প্রতিটি টিকিট ফোল্ডারে ও বোর্ডিং পাসে ছাপা হচ্ছে। আগামী ১৭ মার্চ থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত বিশেষ সেবাপক্ষ পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিমান।

এছাড়া, উড়োজাহাজের অভ্যন্তরে ইন-ফ্লাইট এন্টারটেইনমেন্টে প্রতিটি সিটের এলইডি মনিটরে মুজিববর্ষ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর ওপর নির্মিত ভিডিও, লোগো ও ছবি বাধ্যতামূলকভাবে মনিটর অন করার পর প্রদর্শন করা হবে। ২০২০ সালের ১৭ নভেম্বর বিমানের প্রধান কার্যালয় বলাকায় মুজিববর্ষ উপলক্ষে বিশেষ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। বিশেষভাবে তৈরি লিফলেট, ফ্লাওয়ার উড়োজাহাজের যাত্রীদের প্রতি সিটের পেছনের পকেটে রাখা হবে। আগামী ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ১৭ মার্চ পর্যন্ত প্রতিমাসের ১৭ তারিখে বাংলাদেশ থেকে ছেড়ে যাওয়া বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের যাত্রীদের মুজিববর্ষের লোগো-সংবলিত উপহার দেওয়া হবে। এছাড়াও মুজিববর্ষ উপলক্ষে বিশেষ বুকলেট মুদ্রণ করা হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, মুজিববর্ষকে কেন্দ্র করে বিমানের উড়োজাহাজের লিভারিতে বঙ্গবন্ধুর ছবি সংযুক্তির বিষয়টি আলোচনায় এলেও তা বাস্তবায়ন করা সম্ভব হচ্ছে না। এ প্রসঙ্গে বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মো. মোকাব্বির হোসেন বলেন, ‘এ কাজ করতে হলে উড়োজাহাজগুলোকে বোয়িংয়ের কারখানায় পাঠাতে হবে। তাদের নির্ধারিত শিডিউল মেনে এ কাজ করা অনেক সময়সাপেক্ষ। এ কারণে এটি বাস্তবায়ন করা সম্ভব হচ্ছে না।’

আরও খবর
Loading...