যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ দমনে এবার সেনা মোতায়েনের হুমকি

করোনাভাইরাস তাণ্ডবের মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রে জ্বলে উঠেছে বিদ্বেষের আগুন। এবার এই আগুন নেভাতে ভিন্ন পথ অবলম্বনের কথা জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে রাজধানী ওয়াশিংটনসহ বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়া রাজ্যগুলোতে সেনা মোতায়েনের হুমকি দিয়েছেন তিনি।

গতকাল সোমবার হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় ট্রাম্প এ হুমকি দিয়েছেন বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে মার্কিন সংবাদ ভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল ফক্স নিউজ।

ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, ‘দাঙ্গা, লুটপাট, ভাঙচুর, হামলা ও সম্পত্তি অযথা ধ্বংস করা ঠেকাতে আমি ভারী অস্ত্র সজ্জিত সৈন্য, সামরিক বাহিনীর সদস্য ও আইন প্রয়োগকারী অফিসার মোতায়েন করব।’

তিনি বলেন, ‘বাসিন্দাদের জীবন ও সম্পদ রক্ষায় যদি শহরগুলোর কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ না নেয়, তাহলে আমি যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী মোতায়েন করব ও দ্রুত এসবের সমাধান করব।’

এ ছাড়াও বিক্ষোভকারীদের এসব কর্মকাণ্ডকে ‘ঘরোয়া সন্ত্রাস’ বলে উল্লেখ করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

গত সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপলিসে ৪৬ বছর বয়সী জর্জ ফ্লয়েডের ঘাড়ে হাঁটু দিয়ে চেপে ধরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক চাওভিন। এক প্রত্যক্ষদর্শীর তোলা ১০ মিনিটের ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, জর্জ ফ্লয়েড নিশ্বাস না নিতে পেরে কাতরাচ্ছেন এবং বারবার শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তাকে বলছেন, ‘আমি নিশ্বাস নিতে পারছি না।’

এরপর থেকেই জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্র। বিক্ষোভ দমনে প্রায় ২২টি অঙ্গরাজ্যের ৪০ শহরে কারফিউ জারি করা হয়েছে।

আরও খবর
Loading...