সালমান আত্মহত্যা করেছে তা মানতে পারছি নাঃ মৌসুমী

গতকাল মিডিয়ার সামনে ‘সালমান শাহ হত্যাকাণ্ড’-এর প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সালমান আত্মহত্যা করেছেন। তাদের এই প্রতিবেদন নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সালমানের প্রথম ছবির নায়িকা মৌসুমী।

পিবিআইয়ের দেওয়া বক্তব্য শুনেছেন নিশ্চয়?

এটা কি সত্যি ছিল! আমি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটা ভিডিও দেখেছি। মনে হয়েছিল কেউ গুজব ছড়ানোর জন্য এটা বানিয়েছে। আজকাল তো অনেকেই গুজব ছড়ানোর জন্য কত কিছু করে!

পিবিআই বলেছে, সালমান আত্মহত্যা করেছিলেন। আপনার কী মনে হয়?

তারা তদন্ত করে তারপর রিপোর্ট দিয়েছে। আমি তাদের তদন্তকে সম্মান জানাই। তবে পাশাপাশি এটাও মানতে পারছি না, সালমান আত্মহত্যা করেছে। হ্যাঁ, তার মধ্যে আত্মহত্যা করার প্রবণতা ছিল। শুটিং স্পটে কিছু হলেই সে বলত, ‘আমি মারা যাব, আমি আত্মহত্যা করব।’ কিন্তু বাস্তবে সেটা করার মতো ছেলে সে ছিল বলে কখনোই মনে হয়নি। সালমানের মৃতদেহ যাঁরা দেখেছেন, তাঁরাও বিশ্বাস করেননি সালমান আত্মহত্যা করেছে। আপনি যদি কাউকে গুলি করে মারেন তাহলে তার দেহে গুলির দাগ থাকবে। কেউ গলায় দড়ি দিয়ে মরলে অবশ্যই গলায় দাগ থাকবে, চোখ বড় বড় হয়ে যাওয়া কিংবা শিরাগুলোতে চিহ্ন থাকবে। সালমানের মৃতদেহে আত্মহত্যার কোনো চিহ্ন দেখিনি।

শাবনূরকে নাকি সালমান বিয়ে করতে চেয়েছিলেন। আপনারা একই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করতেন। কিছু কি টের পেয়েছিলেন?

এটা একদম বিশ্বাস করতে পারছি না। সালমান ছিল শাবনূরের সবচেয়ে ভালো বন্ধু। সালমানের কোনো সমস্যা হলে শাবনূরকে বলত, শাবনূরেরও কোনো সমস্যা হলে সালমানকে বলত। দুজনকে যতবার দেখেছি কখনো সন্দেহ লাগেনি। তা ছাড়া শাবনূর তো আমারও খুব কাছের। সে যেকোনো বিষয়ে আমাকে খোলাখুলি বলত। কই! তার কাছেও তো সালমানকে ঘিরে ঘর বাঁধার স্বপ্নের কথা শুনিনি।

কিন্তু সালমানের স্ত্রী সামিরাও তো তেমনটা দাবি করেন!

সামিরাকে আগে সব কিছু জানতে হবে। এভাবে মনগড়া কথা বললে তো চলবে না। তাছাড়া যে চলে গেছে তাকে তো আর ফিরে পাওয়া যাবে না। পৃথিবীতে যে আছে তাকে নিয়ে এমন মিথ্যাচার করার দরকার কি! তার তো ঘরসংসার আছে। এভাবে চলতে থাকলে শাবনূরেরও ক্ষতি হয়ে যেতে পারে। আমি সবাইকে অনুরোধ করব যেটা হয়েছে সেটা মেনে নিয়ে বিষয়টি এখন থেকে ভুলে যেতে। তাহলে সবার জন্য ভালো হবে।

আরও খবর
Loading...