‘সিএএ করা আর সরকারি সম্পত্তি নষ্ট একই ব্যাপার’

‘সিএএ করা আর সরকারি সম্পত্তি নষ্ট একই ব্যাপার’

সিএএ ও এনআরসি আইনের বিরোধিতা করেছেন অনেক তারকা। এবার এই বিরোধিতা দেখা গেল কলকাতার একুশে বইমেলার শেষ দিনে।

বইমেলা শেষ হওয়ার আগের দিন শনিবার অপর্ণা সেনের উদ্যোগে ‘সিটিজেন্স স্পিক’মঞ্চে হাজির হয়েছিলেন বেশ কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তি। সবাই এ দুই আইন সম্পর্কে সরব ছিলেন।

আর চিরাচরিত যুক্তিতর্কের মধ্যেও অন্যরকম এক সুর তুললেন পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়।

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনটি ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্ব প্রদানের ষড়যন্ত্র, এই অভিযোগে সরব হলেন পরমব্রত।

তিনি বলেন, যদি নাগরিক হিসেবে আমরা সরব না হই, তা হলে কখন হব? প্রয়োজনে গলার স্বর আরও চড়াতে হবে। নামতে হবে পথে।

তিনি আরও বলেন, আন্দোলনে নেমে সরকারি সম্পত্তি নষ্ট নিয়েও আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। এ বিষয়ে আমার একটি নির্দিষ্ট মতামত আছে। এনআরসি করতে কয়েক লাখ টাকা খরচ হয়েছে। সিএএ জন্যও প্রচুর অর্থ খরচ হবে। এখন এগুলো সবই তো নাগরিকদের করের টাকা।

আন্দোলনে বাস পোড়ানো উচিত হয়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাস পোড়ানো ঘটনা নিন্দনীয়। তবে বাস পোড়ানোর যে কথা বলা হচ্ছে, তাতে যদি ‘সরকারি সম্পত্তি’র ক্ষতি হয় তবে এনআরসি ও সিএএ করতে যে টাকা খরচ হবে তা জনগণের সম্পত্তি।

আরও খবর
Loading...