সৌদিতে বিমানের ফ্লাইট জটিলতা সমাধানের চেষ্টা চলছে: বেবিচক

বিশেষ প্রতিনিধি : সৌদি আরবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট চালু নিয়ে যে জটিলতা তৈরি হয়েছে তা সমাধানের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)।

মঙ্গলবার সাংবাদিকদের একথা জানান বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান।

বেবিচক চেয়ারম্যান বলেন, দ্রুত বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে। এ নিয়ে দু’দেশের মধ্যে আলোচনা চলছে। আশা করছি, চলমান জটিলতার অবসান হবে। শিগগিরই বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও সৌদি এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট সংখ্যা বাড়ানো হবে।

করোনার কারণে মার্চের শেষের দিকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো সৌদির সঙ্গেও সব আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যায়। এতে ছুটিতে দেশে আসা অনেক প্রবাসী কর্মীরা ঠিক সময়ে আর ফিরতে পারেননি। এরমধ্যে হঠাৎ করেই সৌদি সরকার ঘোষণা দেয়, ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সৌদি আরবে ফিরতে হবে কর্মীদের।

এদিকে আগামী ১ অক্টোবর থেকে বিমানকে বাণিজ্যিক ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি দিয়েছে সৌদি আরব। তবে এখনও ল্যান্ডিং পারমিশন দেয়নি সৌদি কর্তৃপক্ষ। ফলে বিমান ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারছে না।

সৌদি এয়ারলাইন্সের কার্যালয়ের সামনে গত চার দিন ধরে বিক্ষোভ করছেন প্রবাসীরা। মঙ্গলবারও রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে সৌদি এয়ারলাইন্সের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করেন তারা। পরে সমস্যা সমাধানের আশ্বাসে সরে দাঁড়ান বিক্ষোভকারীরা

এর আগে সোমবার রাজধানীর মতিঝিলে বিমানের বিক্রয় কেন্দ্রে বিক্ষোভ করেন সৌদি থেকে ছুটিতে আসা প্রবাসীরা। তাদের মধ্যে অনেকের বৈধ পাসপোর্ট, আকামা (সৌদি আরবে কাজের অনুমতিপত্র) ও বিমান টিকিট থাকা সত্ত্বেও তারা যেতে পারেননি।

সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময় থেকে সৌদি আরবের সঙ্গে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পুনরায় চালুর একটা ঘোষণা এসেছিল সেখানকার কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে। বাংলাদেশের সরকারি বিমান সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসও সৌদি সরকারের শর্ত সাপেক্ষে ফ্লাইট আংশিকভাবে চালু করতে চেয়েছিল।

কিন্তু সৌদি আরবের বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ সেই অনুমতি বাংলাদেশ বিমানকে দেয়নি। এরপর বাংলাদেশও সৌদি এয়ারের ফ্লাইট চলাচলের অনুমতি বাতিল করে দেয়।

প্রবাসী শ্রমিকদের অভিযোগ, বিমানের কারণে সৌদি এয়ারলাইন্সের চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তারা আটকে পড়েছেন। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস আগামী ১ অক্টোবর থেকে সৌদি আরবে বাণিজ্যিক ফ্লাইট শুরুর অনুমতি পেলেও দরকার হচ্ছে ল্যান্ডিং পারমিশনের।

বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোকাব্বির হোসেন জানান, ল্যান্ডিং পারমিশন নিশ্চিত হলেই ফ্লাইট ঘোষণা করা হবে।

এমএমরহমান/ঢাকা

আরও খবর
Loading...