যে কোন সময় বন্ধ হচ্ছে লন্ডন ফ্লাইট

করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় শর্ট নোটিশে বা স্বল্প সময়ের নোটিশে বিমান চলাচলে বিধিনিষেধ দিতে পারে বাংলাদেশ। তাই এখানে অবস্থানকারী কোনো বৃটিশ নাগরিক বাংলাদেশ ত্যাগ করতে চাইলে তাকে যত দ্রুত সম্ভব সেই আয়োজন করতে অনুরোধ জানানো হয়েছে বৃটিশ সরকারের পক্ষ থেকে। বাংলাদেশ ইস্যুতে সর্বশেষ ভ্রমণ সতর্কতায় একথা বলা হয়েছে বৃটিশ সরকারের ওয়েবসাইটে। এতে বলা হয়, বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এর আগে দেয়া সতর্কতা বহাল থাকবে। আরো বলা হয়েছে, বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ নিশ্চিত হওয়া গেছে। এর প্রেক্ষিতে কর্তৃপক্ষ এই ভাইরাসের বিস্তাররোধে নানা রকম বিধিনিষেধ আরোপ করছে। এর মধ্যে ২৬শে মার্চ থেকে ৪ঠা এপ্রিল পর্যন্ত দোকানপাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এ সময়কে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার।

২১শে মার্চ ঢাকায় বৃটিশ হাইকমিশন থেকে কিছু স্টাফ ও তাদের ওপর নির্ভরশীলকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। প্রতি বছর দেড় লাখ পর্যন্ত বৃটিশ নাগরিক নির্বিঘ্নে বাংলাদেশ সফর করেন। ওই বিবৃতিতে রাজনৈতিক পরিস্থিতি, সন্ত্রাস ও অন্যান্য বিষয়ে সতর্কতা আগের মতোই রাখা হয়েছে।

আরও খবর
Loading...