ঢাকা-নিউইয়র্ক ফ্লাইট আবারও বিলম্ব হচ্ছে!

Bangladesh-Bimanএভিয়েশন নিউজ: বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ঢাকা-নিউইয়ার্ক ফ্লাইট কেবলই বিলম্বিত হচ্ছে। জুনের প্রথম সপ্তাহে শুরু করার কথা থাকলেও সেটি এখন মধ্য আগস্টে চলে গেছে। যদিও আনুষ্ঠানিকভাবে এ বিষয়ে কোনো ঘোষণা দেওয়া হয়নি। তবে সূত্রগুলো নিশ্চিত করেছে এ খবর।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনেস্ট্রেশন (এফএএ) অনুসারে বিমান ক্যাটাগরি-২ এর ক্যারিয়ার। আর এফএএ অনুসারে ক্যাটগরি-১ না হলে তারা কাউকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ল্যান্ড করতে দেয় না। আর বিমান যেহেতু ক্যাটাগরি-২ তে চলে গেছে তাই তাকে নিউইয়র্কের সঙ্গে ফ্লাইট রুট চালু করতে কয়েকটি ক্ষেত্রে সেবার মান বাড়িয়ে ক্যাটাগরি-১ এ আসতে হবে। এর আগে ৪ জুন বাংলাদেশ বিমানের ঢাকা নিউইয়র্ক রুট পুনচালু হওয়ার কথা ছিল। পরিকল্পনা অনুসারে ৩১ জানুয়ারী থেকে বিমানের সকল স্টেশন ও ট্রাভেল এজেন্সিগুলোতে এই রুটের টিকিট বিক্রি শুরু করার কথা ছিল। কিন্তু সব আয়োজন ইতিমধ্যে ভেস্তে গেছে।

এর আগে ২০০৬ সালে বিমান কর্তৃপক্ষ সর্বশেষ ঢাকা-নিউইয়র্ক ফ্লাইট পরিচালনা করেছে। তখন লোকসানের কথা বলে, বিমানের ফ্লাইট বন্ধ করে দেওয়া হয়। তবে বিমান এফএএ-এর হিসেবে ক্যাটাগরি-২তে এসেছে ১৯৯৭ সালে। কিন্তু তখনো যেহেতু বিমানের ফ্লাইট চছিল তাই এফএএ বিমানকে বিশেষ বিবেচনায় সুযোগ দিয়ে আসছিল। সম্প্রতি উদ্যোগ নেওয়ার পর এফএএ বিমানকে ক্যাটাগরি-১ এ শর্তসাপেক্ষে আসার সুযোগ দিয়েছে। তবে একই সঙ্গে কয়েকটি শর্তও দেয় তারা। এর মধ্যে অন্যতম হল সেবা, ক্র, ইনসুরেন্স এবং বস্থাপনা সবকিছু ক্যাটাগরি-১ আসতে হবে।

এক্ষেত্রে বিমানের যেহেতু সীমাবদ্ধতা আছে সেক্ষেত্রে এই সেবাগুলো অন্য কোনো ক্যারিয়ারের কাছ থেকে ধার নেওয়ারও সুযোগ আছে। বিমান এমন একটি দরপত্র আহবান করলে আটটি আবেদন জমা পড়ে। কিন্তু ছয় দেশের আটটি ক্যারিয়ারের আবেদন এতোটাই বিক্ষিপ্ত ছিল যে সেগুলোকে বাতিল করে দিয়ে নতুন করে দরপত্র আহবানের জন্যে বলেছে বিমান পরিচালনা বোর্ড। আর এ জন্যেই জুনের পরিকল্পনা পিছিয়ে মধ্য আগষ্টে চলে গেছে।

বিমানের বিদায়ী ব্যবস্থাপনা পরিচালক কেভিন স্টিল এ বিষয়ে বলেন, আগস্টের মধ্যে আমরা আমেরিকায় পৌঁছে যেতে পারব। এতে কোনো সমস্যাই হবে না। কিন্তু এখনই নির্দিস্ট করে তারিখ বলতে চাইছি না। আগের পরিকল্পনা অনুসারে সপ্তাহে দুটি ফ্লাইট ঢাকা-নিউইয়ার্ক রুটে চলাচল করবে। এক্ষেত্রে শুক্রবার ও সোমবার দুপুর পোনে ২ টায় ঢাকা থেকে ছেড়ে যাবে ফ্লাইটগুলো। অপর দিকে যুক্তরাস্ট্রের স্খানীয় সময় সাড়ে ৪টায় নিউইয়র্ক থেকে ছেড়ে আসবে।

সিভিল এভিয়েশনের পরিচালক (ফ্লাইট সেফটি) উইং কমান্ডার নাজমুল আনাম জানান, ঢাকা নিউইয়র্ক রুটে বিমানের ফ্লাইট পরিচালনা করা ছিল বর্তমান সরকারের নির্বাচনী অঙ্গীকার। প্রধানমন্ত্রী শেক হাসিনা একাধিকবার ঢাকা নিউইয়র্ক রুটে ফ্লাইট পরিচালনার অঙ্গীকার করলেও আন্তর্জাতিক কিছু বিধি নিষেধের কারণে এতদিন এটা সম্ভব হয়নি।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে সিভিল এভিয়েশনের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে তারা এসব বাধা বিপত্তিগুলো দুর করতে সমর্থ হয়েছেন। একামাত্র সিভিল এভিয়েশনের আগগ্রেডেশন ছাড়া অন্যান্য সব সমস্যা নিরসন করা হয়েছে। যে কোন মুহুর্তে আপগ্রেডেশনের জন্য আডিট টিম আসবে বাংলাদেশে। তিনি আশা করছেন এরপরই বাংলাদেশ আন্তজাতিকভাবে ক্যাটাগরি-১ দেশে পরিণত হবে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.