ঢাকা-দিল্লি টুইন সিটি অ্যাগ্রিমেন্টে আগ্রহী মেয়র খোকন

Sayeed-Khokon-and-Sringla20160517024640ঢাকা-দিল্লি টুইন সিটি অ্যাগ্রিমেন্ট করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন। দুই শহরের মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজীকরণের পাশাপাশি উন্নয়ন একীভূত করতে এ চিন্তাভাবনা তার।

ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলার নেতৃত্বে ৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল সোমবার (১৬ মে) নগর ভবনে মেয়র সাঈদ খোকনের সঙ্গে তার কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাতে গেলে তিনি এই আগ্রহের কথা জানান।

মেয়র এবং হাইকমিশনার উভয়েই দিল্লি, কলকাতা বা মুম্বাইয়ের যেকোনো একটির সঙ্গে একটি টুইন সিটি অ্যাগ্রিমেন্ট করার বা এ ধরনের কোনো উদ্যোগ নেওয়ার বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

তারা মনে করেন, টুইন সিটি হলে দুই শহরের মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হবে। পাশাপাশি দুই শহরের উন্নয়ন ও বিভিন্ন কর্মকাণ্ড নিয়ে নিজেদের মধ্যে অভিজ্ঞতা বিনিময় করতে পারবে। দিল্লি বা কলকাতা নাগরিক সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে কী কী উদ্যোগ নিয়েছে সেগুলোর আলোকে ঢাকা কাজ করতে পারে। বিনিময় করতে পারবে নানা ক্ষেত্রের অভিজ্ঞতাও।

হাইকমিশনার বাংলাদেশি গণমাধ্যমের ভূমিকায় সন্তোষ প্রকাশ করে জানান, গণমাধ্যম জনগণকে তথ্য জানানোর ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। ঢাকা একটি ভাইব্রান্ট সিটি হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে।

তিনি জাতীয় পর্যায়ে উভয় দেশের মধ্যে বিদ্যমান ঘনিষ্ট সম্পর্ক স্থানীয় পর্যায়ে জনগণের মধ্যে বিস্তৃতকরণে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

এছাড়া মেট্রোরেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী এলইডি বাতি, স্বাস্থ্য, জনসংখ্যা, পাবলিক ইউটিলিটিসহ নানা ক্ষেত্রে উভয় দেশের কাজ করার সুযোগ রয়েছে বলেও একমত পোষণ করেন সাঈদ খোকন ও শ্রিংলা।

সাক্ষাৎকালে ডিএসসিসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিলাল, সচিব খান মো. রেজাউল করিম উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.