পাসপোর্ট অফিসের কর্মকর্তার কাছেই ঘুষ চাইলো পুলিশ

Bhaban220160522092403পাসপোর্ট প্রত্যাশী ভেবে নৌ-বাহীনির এক লেফটেন্যান্টের কাছে উৎকোচ দাবি করার অভিযোগে বরিশাল পাসপোর্ট অফিসে দায়িত্বরত এসআই, নায়েকসহ পুলিশের ৪ সদস্যকে লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে।

রোববার দুপুরে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের এক আদেশে তাদের পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

ক্লোজড পুলিশ সদস্যরা হলেন, এসআই এবি উজ্জল, নায়েক হাবিব, কনস্টেবল ইমামুল ও কনস্টেবল মোস্তফা। একই সঙ্গে ওই অফিসের এক অফিস সহায়কের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে বলে পাসপোর্ট অফিস সূত্রে জানা গেছে।

পাসপোর্ট অফিস সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, রোববার ঢাকাস্থ মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) প্রজেক্টের সহকারী ব্যবস্থাপনা প্রকৌশলী নৌ-বাহীনির লে. জাওয়াদ হাবিব চৌধুরী পাসপোর্ট অফিসে প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে সেখানকার দায়িত্বরত পুলিশের নায়েক হাবিব তাকে ডাক দেয়। এরপর লে. জাওয়াদ কারণ জানতে চাইলে নায়েক হাবিব জানান, বাড়তি টাকা দিলে তিনি ঝামেলা ছাড়াই (হাবিব) পাসপোর্ট করিয়ে দিতে পারবেন। তার সঙ্গে পাসপোর্ট অফিসের অফিস সহায়ক মাইনুলের ঘনিষ্ঠতা রয়েছে। টাকা দিলেই কয়েক দিনের মধ্যে পাসপোর্ট পেয়ে যাবেন। এ সময় যোগ দেয় সেখানকার দায়িত্বরত এসআই এবি উজ্জল, কনস্টেবল ইমামুল ও কনস্টেবল মোস্তফা।

এরপর লে. জাওয়াদ বিষয়টি লিখিতভাবে পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালককে অবহিত করেন। উপ-পরিচালক বিষয়টি পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবহিত করলে ওই চার পুলিশ সদস্যকে বরিশাল পুলিশ লাইনে ক্লোজড করে নতুন সদস্যদের পাসপোর্ট অফিসে দায়িত্ব দেয়া হয়।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের মুখপাত্র ও ডিবি পুলিশের সহকারী কমিশনার আবু সাঈদ জানান, লিখিত একটি অভিযোগের ভিত্তিতে ৪ চার পুলিশ সদস্যকে সেখান থেকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালক সুমনা শাওন শারমীন জানান, অফিস সহায়ক মাইনুলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন কথা ওঠায় ব্যবস্থা নিতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

এদিকে অপর একটি সূত্র জানায়, এমআরপি প্রজেক্টের দায়িত্বে থাকা লে. জাওয়াদ মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) প্রজেক্টের কাজে রোববার বরিশাল পাসপোর্ট অফিসে আসেন। কিন্তু তাকে চিনতে না পারার কারণে পাসপোর্ট প্রত্যাশী ভেবে পুলিশ তাকে ডাক দিয়ে পাসপোর্ট করতে টাকা দাবি করে বিপদে পড়ে যায়।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.