অনুমোদন পেল করোনা শনাক্ত করণে দেশে উদ্ভাবিত পিসিআর টেস্ট কিট

করোনাভাইরাস শনাক্তকরণে দেশে উদ্ভাবিত প্রথম আরটি-পিসিআর টেস্ট কিটের অনুমোদন দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর।

বাংলাদেশি বায়োটেক কোম্পানি ওএমসি হেলথকেয়ার (প্রা.) লি. এই কিট উদ্ভাবন করেছে।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্ধারিত নিয়ম শতভাগ মেনেই করোনাভাইরাস শনাক্তকরণে তৈরি করা হয়েছে এই আরটি-পিসিআর কিট।

গত ৩ জানুয়ারি ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর এই কিটটি বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন এবং সরবরাহ করার অনুমোদন দিয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং ইউএস সিডিসি নির্দেশিকা অনুযায়ী নির্মিত ওএমসি হেলথকেয়ারের উদ্ভাবিত কিটটি কোভিড-১৯ ভাইরাসের মিউটেশনের ধরণ শনাক্তকরণে সম্পূর্ণ সক্ষম।

করোনা আক্রান্ত রোগী চিহ্নিত করতে শনাক্তকরণ পরীক্ষার কোনো বিকল্প নেই। বিদেশ থেকে আমদানি করা কিট দিয়ে টেস্ট করতে যে পরিমাণ খরচ হয়, এর চেয়ে ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ কম খরচে ওএমসি হেলথকেয়ারের কিট দিয়ে টেস্ট করা যাবে।

বাংলাদেশে উৎপাদিত হলে কোভিড-১৯ শনাক্তকরণ কিটের কোনো স্বল্পতা থাকবে না, বরং দেশের চাহিদা মিটিয়ে তা বিদেশেও রপ্তানি করা সম্ভব হবে।

প্রাথমিকভাবে প্রতিদিন ৪০ থেকে ৫০ হাজার কোভিড-১৯ আরটি-পিসিআর টেস্ট কিট উৎপাদন করার সক্ষমতা রয়েছে এবং প্রয়োজনে এই সক্ষমতা বাড়ানো যাবে। কিটের সর্বোচ্চ গুণগতমান নিশ্চিত করতে স্বয়ংক্রিয় অটোমেটিক প্রোডাকশন লাইন ব্যবহার করছেন বলে জানান, ওএমসি হেলথকেয়ার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মেজবাহুল কবির।

তিনি বলেন, ঔষধ প্রশাসন এবং আইইডিসিআরের সর্বাত্মক সহযোগিতায় কিটটির অনুমোদন দ্রুততার সঙ্গে সম্পন্ন হয়েছে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.