সৌদিতে পানির ট্যাংক পরিষ্কার করতে গিয়ে মামা-ভাগ্নেসহ ৩ বাংলাদেশির মৃত্যু

সৌদি আরবের তায়েফ শহরে পানির ট্যাংক পরিষ্কার করতে গিয়ে চাঁদপুরের মতলব ও কচুয়ার দুইজন এবং কুমিল্লার দাউদকান্দির একজনের করুণ মৃত্যু হয়েছে। বর্তমানে তাদের মরদেহ ওই দেশের হসপিটালে রয়েছে। রোববার রাতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তারা তিনজন সে দেশে ফ্রি ভিসায় কাজ করতেন বলে জানা গেছে।

নিহতরা হলেন- দাউদকান্দি উপজেলার আজগর প্রধানের ছেলে লিটন (৩৫), তার ভাগিনা মতলব পৌর এলাকার দক্ষিণ নলুয়া প্রধানিয়া বাড়ির খোকন প্রধানিয়ার ছেলে মেহেদি হাসান (২২) ও পার্শ্ববর্তী কচুয়া এলাকার সফিক মোল্লার ছেলে ফয়সাল মোল্লা (২৩)।

মঙ্গলবার রাত ১০টায় নিহত মেহেদির চাচাতো ভাই মাসুদ মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নিহত লিটনের ফুফাতো ভাইয়ের ছেলে সেলিম ফোন করে মেহেদীর বাবাসহ তাদের মৃত্যুর সংবাদ জানান। এ ব্যাপারে নিহত মেহেদীর বাবা খোকন প্রধান তার ছেলের মৃত্যুর বিষয়টি যুগান্তরকে নিশ্চিত করেছেন।

তাদের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় পুরো বাড়ি শোকে মুহ্যমান। মেহেদীর মা পুত্রশোকে বাকরুদ্ধ হয়ে আছেন। নিহত মেহেদীর চাচাতো ভাই মাসুদ বলেন, নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত স্থানীয় প্রশাসনকে জানানো হয়নি। সৌদি আরবে নিহতদের দেশে লাশ আনার ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কফিলের সহযোগিতা পাচ্ছেন না বলে তাদের সেখানকার প্রবাসী আত্মীয়রা জানিয়েছেন।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.