চীনের করোনা ভ্যাকসিনগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে

চিকিৎসা বিজ্ঞানে দেখা যায়, ব্যাপক সংখ্যক জনগোষ্ঠীর মধ্যে যখন কোনো নতুন ওষুধ বা ভ্যাকসিনের পরীক্ষা করা হয়, তখন তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল এড়িয়ে গেলে ভাগ্য সেক্ষেত্রে খুব কমই প্রসন্ন হয়।
কিন্তু গত বছর চীন থেকে করোনার যে ভ্যাকসিনগুলো এসেছে সেগুলো ঠিক এভাবেই এসেছে।

বেইজিং বিমানবন্দরের কর্মীদের অপরীক্ষিত ভ্যাকসিন দেয়া হবে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়েছিল।
বছরের শেষ নাগাদ চীনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা নিশ্চিত করলেন, সেখানে জনগণের মধ্যে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু হয়েছে।
যদিও করোনাভাইরাসের জন্য দায়ী সার্স-কোভ-২ ভাইরাসটির বিরুদ্ধে চীনে যে ভ্যাকসিন তৈরি করা হয়েছে তার তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল তখনো হয়নি।
নভেম্বরের মধ্যে চীনের ১০ লাখ ব্যক্তিকে ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে।
এত বিশাল ও অনিয়ন্ত্রিত পরীক্ষণ দেখে সারা বিশ্বের বিজ্ঞানীরা হতবাক হয়ে গেছেন।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.