পর্তুগাল ভ্রমণে ব্রিটিশ পর্যটকদের জন্য আসছে সবুজ সংকেত

করোনা মহামারির কারণে যুক্তরাজ্যের নাগরিক বা বসবাসকারী জনগণের জরুরি প্রয়োজন ব্যতীত বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তবে আগামী গ্রীষ্মের অবকাশযাপন কেন্দ্র করে ১৭ মে থেকে কিছু কিছু কম করোনা সংক্রমণপ্রবণ দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা হচ্ছে এবং পর্তুগাল এ নিরাপদ দেশের তালিকায় যুক্ত হতে যাচ্ছে।

গত বৃহস্পতিবারের দ্য ডেইলি সান পত্রিকা ব্রিটিশ সরকারের ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং আন্ত:পরিবহন সংস্থার প্রধান পর্তুগালের বিষয়ে সবুজ সংকেত দিয়েছেন এবং পর্তুগালকে নিরাপদ দেশ হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করার সম্ভাবনা ব্যক্ত করেছেন। উক্ত বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে আগামী ১৭ মে’র পর থেকে যুক্তরাজ্য থেকে পর্তুগালের টিকিটের দাম ঊর্ধ্বমুখী লক্ষ্য করা গেছে; যা গত ২০২০ সালে একই সময়ে নামমাত্র মূল্যে বিক্রি হয়েছে।

যুক্তরাজ্য সরকার ট্রাফিক সিগন্যালের আদলে সবুজ হলুদ এবং লাল তিনটি রঙে ভ্রমণ বিধিনিষেধ নির্দেশিত করেছেন।

ভৌগোলিক অবস্থান এবং আবহাওয়ার তারতম্যের কারণে প্রতি বছর ২.৫ মিলিয়ন ব্রিটিশ পর্যটক পর্তুগাল ভ্রমণ করেন। তাছাড়া পর্তুগালের অন্যতম পর্যটন শহর আলগার্ভ ব্রিটিশ পর্যটকদের কাছে অত্যন্ত আকর্ষণীয় গন্তব্য হিসেবে বিবেচিত।

ব্রিটিশ পর্যটকদের ভ্রমণের সংখ্যা বলে দিচ্ছে পর্তুগালের পর্যটন শিল্পের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ। তাই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা শিথিল করে পর্তুগালকে সবুজ জোনে যুক্ত করা হলে মহামারির ধ্বংসযজ্ঞের পর নতুন করে স্বপ্ন দেখা পর্তুগালে পর্যটন শিল্পের সাথে জড়িত গোষ্ঠীর জন্য একটি আশার আলো হিসেবে ধরা দেবে; তথা পর্তুগালে অবস্থিত ৯৫ শতাংশ প্রবাসী বাংলাদেশিদের জীবনে কিছুটা স্বস্তি ফিরে আসবে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.