করোনার টিকা বিক্রি করে তারা বিলিয়নেয়ার

বিশ্বের জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা মহামারি করোনা ভাইরাস থেকে পৃথিবী মুক্ত করতে ভ্যাকসিনই কার্যকর পন্থা বলছেন।

বিশ্বের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান করোনাভাইরাস প্রতিরোধে টিকা নিয়ে এসেছে। বিশ্বের সমানধন্য এই সব প্রতিষ্ঠানের কোভিড-১৯ টিকা শুধু ই করছে না, কোম্পানিগুলোর মুনাফাও বাড়িয়ে তুলছে।

মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, এই টিকা কোম্পানিগুলোর শেয়ারের দাম বাড়ায় বিশ্বে নতুন নয়জন বিলিয়নেয়ার বা শত কোটিপতিরও দেখা মিলেছে। পিপলস ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্সের তথ্যের ভিত্তিতে এমন খবর জানিয়েছে সিএনএন।

সেই নয় বিলিয়নেয়ারদের তালিকায় যারা যুক্ত হয়েছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন মডার্নার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) স্টেফান ব্যানচেল ও বায়োএনটেকের সিইও উগুর সাহিন। দুজনেরই সম্পদের পরিমাণ প্রায় চার বিলিয়ন বা চারশ কোটি ডলারের মতো।

এদিকে মানবাধিকারকর্মীরা জানান, মহামারীর কারণে এত বিশাল সম্পদের অধিকারী হওয়ায় বিশ্বে সম্পদের বৈষম্য প্রকট হয়ে উঠেছে।

সিএনএন জানায়, মহামারী শুরুর পর ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি মডার্নার শেয়ারের দাম ৭০০ শতাংশ বেড়েছে। অন্যদিকে জার্মান কোম্পানি বায়োএনটেকের শেয়ারের দাম বেড়েছে ৬০০ শতাংশ।

এদিকে বিশ্ব অর্থনৈতিক বিশ্লেষকেরা জানান, নতুন নয়জন বিলিয়নেয়ারের মোট সম্পদের পরিমাণ এক হাজার ৯৩০ কোটি ডলার, যা ৭৮ কোটি মানুষকে করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়ার জন্য যথেষ্ট।

করোনা ভাইরাসের টিকা বিক্রি থেকে এ বছরের প্রথম তিন মাসে বায়োএনটেক কোম্পানি ১৩০ কোটি ডলারের মুনাফা করেছে। অথচ গত বছর লোকসানে ছিল তারা।

মডার্না টিকা উদ্ভাবনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সরকারের কাছ থেকে বিলিয়ন ডলারের তহবিল পেয়েছে বলে জানিয়েছে সিএনএন। মডার্নার টিকা বিক্রি থেকে আয় ১৭০ কোটি ডলার।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.