দেশে দারিদ্র্যের হার ক্রমেই কমছে : চুমকি

chumki-120160616121003দেশে দারিদ্র্যের হার ক্রমেই কমছে বলে জানিয়েছেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর মহিলা বিষয়ক অধিদফতরে দারিদ্র্য বিমোচনে মাতৃত্বকালীন ভাতাপ্রাপ্ত মায়েদের জন্য স্বপ্ন প্যাকেজ কর্মসূচির অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে দেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করতে স্বপ্ন প্যাকেজ কর্মসূচি অবদান রাখছে। দারিদ্র্য বিমোচন তথা এসডিজির লক্ষ অর্জন আগামীতে স্বপ্ন প্যাকেজ কর্মসূচি আরো সম্প্রসারণ করা হবে। এখন মানবসম্পদকে আরো দক্ষ করে তুলতে হবে।

চুমকি বলেন, সরকার ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটে সামাজিক নিরাপত্তা খাতে দরিদ্র মায়েদের জন্য মাতৃত্বকালীন ভাতা ভোগীর সংখ্যা ৯০ শতাংশ বাড়িয়ে পাঁচ লাখে উন্নীত করেছে। এই ভাতাকেন্দ্রিক স্বপ্ন প্যাকেজ কর্মসূচির মনিটরিংকে গুরুত্ব দিতে হবে। পাশাপাশি সমাজে নারীর প্রতি পুরুষের দৃষ্টিভঙ্গীরও পরিবর্তন আনতে হবে। পরিবারে নারীর সম্মান বাড়াতে হবে। সমাজে নারীদের আরো দক্ষ হয়ে গড়ে উঠতে হবে।

মন্ত্রী আরো বলেন, মহিলা বিষয়ক অধিদফতর নারী সমাজের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। উপজেলা পর্যায়ে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাদের দক্ষতা ও সম্মান আগের থেকে অনেক বেড়েছে।

মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের মহাপরিচালক শাহিন আহমেদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম এনডিসি, অতিরিক্ত সচিব বিকাশ কিশোর দাস, মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের পরিচালক (যুগ্ম সচিব) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন এনডিসি, স্বপ্ন প্যাকেজ কর্মসূচির প্রকল্প পরিচালক পারভীন সুলতানা, স্বপ্ন প্যাকেজ মডেলের উদ্ভাবক এএইচএম নোমান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, পাঁচটি ভিত্তি সম্বলিত সোশ্যাল অ্যাসিসট্যান্স প্রোগ্রাম ফর নন-অ্যাসেটার্স (স্বপ্ন) প্যাকেজ কর্মসূচি মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতায় মহিলা বিষয়ক অধিদফতর দেশের সাতটি বিভাগের ১০টি উপজেলায় বাস্তবায়ন করছে। বেসরকারি সংস্থা ডরপ এ কাজের সমন্বয় ও সহযোগিতার দায়িত্ব পালন করছে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.