বোরকায় চিনতে ভুল, স্ত্রী ভেবে অন্য নারীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

রাজধানী ঢাকার মোহাম্মদপুরে সাবেক স্ত্রী ভেবে অন্য নারীকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে এক যুবক। নিহত ঐ নারীর নাম আয়েশা সিদ্দিকা (২৬)।
আর হত্যাকারী হলেন ট্রাকচালক সেকুল মিয়া (৩০)।
গতকাল শুক্রবার ভোরে মোহাম্মদপুরের নবোদয় হাউজিং এলাকায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর আহতাবস্থায় আয়েশাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকালে তিনি মারা যান।
ঘটনার পরই স্থানীয় লোকজন সেকুল মিয়াকে আটক করে মোহাম্মদপুর থানা পুলিশে সোপর্দ করে।
ঘাতক সেকুল মিয়া পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছে যে, সে বোরকা পরিহিত আয়েশা সিদ্দিকাকে তার সাবেক স্ত্রী ভেবে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।

জানা গেছে, নিহত আয়েশা পেশায় একজন গার্মেন্টস কর্মী।
তার স্বামীর নাম রুবেল ইসলাম। তিনি পেশায় ইলেকট্রিক মিস্ত্রি।
আরিফা নামে তাদের পাঁচ বছর বয়সি একটি মেয়ে রয়েছে।
তারা নবোদয় হাউজিং এলাকায় থাকতেন।

সেকুল মিয়া পুলিশকে জানায়, চার বছর আগে স্ত্রীর সঙ্গে তার বিচ্ছেদ হয়।
এরপর পুনরায় বিয়ের আশ্বাস দিয়ে সেকুল মিয়ার কাছ থেকে ৫ লাখ টাকাও নেন। আথচ গত মাসে সাবেক ঐ স্ত্রী অন্যত্র বিয়ে করে। এজন্য তাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন।
গতকাল ভোরে নবোদয় হাউজিং এলাকায় বোরকা পরে তার সাবেক স্ত্রী একটি রিকশায় উঠলে সেকুল তার পিছু নেন।
একপর্যায়ে রিকশার গতিরোধ করে কাঁচি দিয়ে বোরকা পরিহিত এক নারীকে একের পর এক আঘাত করেন তিনি। রিকশা থেকে নিচে পড়ে গেলে সেকুল দেখতে পান ঐ নারী তার স্ত্রী নন। তার সাবেক স্ত্রী তখন পাশেই অন্য একটি রিকশায় ছিলেন।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.