দেশে গ্যাসের দাম বাড়ানোর উদ্যোগ

প্রায় তিন বছর পর বাড়তে যাচ্ছে জ্বালানি গ্যাসের দাম।
পেট্রোবাংলার প্রস্তাবের বিপরীতে দাম সমন্বয়ের প্রস্তাব নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনে (বিইআরসি) পাঠাতে সম্মতি দিয়েছে সরকারের জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ।
সে অনুযায়ী মূল্যহার বৃদ্ধির প্রস্তাব কমিশনে জমা দিতে শুরু করেছে গ্যাস সঞ্চালন, উৎপাদন এবং বিতরণ কোম্পানিগুলো।
প্রস্তাব বিশ্লেষণ ও শুনানি শেষে দামবৃদ্ধির ঘোষণা আগামী জুন মাসে করা হতে পারে বলে জানা গেছে।

গত দুই দিনে জমা দেওয়া তিনটি বিতরণ কোম্পানি গ্যাসের দাম দ্বিগুণের বেশি নির্ধারণ করতে চায়।
তবে তাদের চাওয়াকে ‘অতিরিক্ত’ বলছেন বিইআরসির শীর্ষ কর্মকর্তারা।
অন্যদিকে ব্যবসায়ী-উদ্যোক্তারা বলছেন, গ্যাসের দাম বৃদ্ধির কারণে উৎপাদন ব্যয় বাড়ালেও পর্যাপ্ত সরবরাহ নিশ্চিত করা গেলে বাণিজ্যের-শিল্পের চাকা সচল রাখা যায়।
কিন্তু নিয়মিত বিরতিতে দাম বৃদ্ধি হলেও সরবরাহ না বাড়ায় শিল্প উৎপাদনের গতি ধীর এবং অনেক ক্ষেত্রে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।

বিইআরসি এবং পেট্রোবাংলা সূত্র জানায়, দেশে ছয়টি গ্যাস বিতরণকারী কোম্পানি রয়েছে।
এগুলোর মধ্যে তিনটি কোম্পানি গত সোম ও মঙ্গলবারে গ্যাসের দাম বাড়াতে পেট্রোবাংলায় প্রস্তাব পাঠিয়েছে।
কোম্পানিগুলো গ্যাসের দাম ১০৩ থেকে ১১৬ শতাংশ পর্যন্ত অর্থাৎ দ্বিগুণের বেশি বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে।
এর আগে গত সপ্তাহে চারটি কোম্পানি প্রস্তাব দিয়েছিল।
সেগুলো বিধিমতো না হওয়ায় ফেরত পাঠিয়েছিল বিইআরসি।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.