‘হিজাব বা জিনস পরার সিদ্ধান্ত নেওয়া নারীর অধিকার’

ভারতের কর্ণাটক রাজ্যে ছাত্রীদের হিজাব পরিধান নিয়ে বিতর্ক দিন দিন বাড়ছে।
যার কারণে আগামী তিন দিন বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে সেখানকার স্কুল ও কলেজ।
রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাই সবাইকে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখার আহ্বান জানিয়ে এই ঘোষণা দিয়েছেন।

এই বিতর্কে সরব ভারতের বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্বও।
কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধীও খুললেন মুখ।
বিক্ষোভরত মুসলিম ছাত্রীদের সমর্থন জানিয়ে করেছেন টুইট।

টুইটে প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘বিকিনি হোক, ঘোমটা, জিনস বা হিজাব হোক।
তিনি কী পরতে চান, তার সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার একজন নারীর আছে। ভারতীয় সংবিধানের মাধ্যমে এই অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে।
নারীদের হয়রানি বন্ধ করুন।’

এনডিটিভি জানায়, উত্তর প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে কংগ্রেসের অন্যতম প্রধান ইস্যু এই নারী অধিকার। নারীর ক্ষমতায়ন।
এই নির্বাচনে কংগ্রেসের প্রচারে নেতৃত্ব দিচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী।

গত সপ্তাহে কর্ণাটকের উদুপি জেলায় এক সরকারি কলেজ কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের ইউনিফর্ম-সংক্রান্ত কিছু বিধিনিয়ম জারি করে।
সেখানে বলা হয়, হিজাব পরে কোনো ছাত্রী ক্লাস করতে পারবে না।
কারণ, তা বৈষম্য সৃষ্টিকারী।
কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী, ছাত্রীরা ‘স্কার্ফ’ পরতে পারবে।
স্কার্ফের রং হতে হবে ওড়নার রঙের সঙ্গে মানানসই।

 

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.