চেয়ারে বসতে পারছেন না চেয়ারম্যানরা

ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন সম্পন্ন হলেও চেয়ারে বসতে পারছেন না নির্বাচিত হাজার হাজার চেয়ারম্যান ও সদস্যরা।
কেননা, ভোটের ফলাফল গেজেট আকারে প্রকাশ না হওয়ায় অধিকাংশ ইউপিতে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়নি।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) নির্বাচন পরিচালনা শাখার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ২০১৬ সালে ছয় ধাপে ৪ হাজারের বেশি ইউপিতে ভোট করেছিল ইসি।
সে সময় ২২ মার্চ, ৩১ মার্চ, ২৩ এপ্রিল, ৭ মে, ২৮ মে এবং ৪ জুন ভোটগ্রহণ হয়েছিল।
এক্ষেত্রে ২০২১ সালের ২১ মার্চের মধ্যে ৭৫২ ইউপির, ৩০ মার্চ ৬৮৪ ইউপির, ২২ এপ্রিল ৬৮৫ ইউপির, ৬ মে ৭৪৩ ইউপির, ৭৩৩ ইউপিতে ২৭ মে এবং ৩ জুন ৭২৪ ইউপির মেয়াদ শেষ হয়েছে।
তবে, করোনার কারণে নির্বাচন করা সম্ভব না হলে মেয়াদ শেষ হলেও পূর্বের নির্বাচিতরাই স্বপদে থাকার সময় পায়।

সেসময় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেছিলেন, নির্বাচন না হওয়ার পর্যন্ত যারা ইউপিতে চেয়ারম্যান কিংবা সদস্য হিসেবে আছেন, তারাই দায়িত্ব পালন করবেন।
কিন্তু করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নির্বাচনগুলো সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন।
এরপরও আগের চেয়ারম্যানরাই অধিকাংশ ইউপিতে পদ ধরে রেখেছেন।
নব নির্বাচিতরাই বসতে পারছেন না চেয়ারে। আর এর পেছনে একমাত্র কারণ হচ্ছে নির্বাচনের ফলাফল গেজেট আকারে প্রকাশে কচ্ছপ গতি।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.