বছরের শুরুতে কমল এলপিজির দাম

দেশে ভোক্তা পর্যায়ে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাসের (এলপিজি) দাম কমেছে। ইউক্রেন যুদ্ধ পরিস্থিতির কারণে ডলার ও জ্বালানির দামের সংকটের মধ্যে প্রতি ১২ কেজির এলপিজি সিলিন্ডারের দাম কমলো ৬৫ টাকা। এবার ১২ কেজি সিলিন্ডারের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১ হাজার ২৩২ টাকা, যা ডিসেম্বর মাসে ছিল ১ হাজার ২৯৭ টাকা। নির্ধারিত নতুন দাম আজ সন্ধ্যা ৬টা থেকেই কার্যকর হবে।

আজ সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে নতুন দাম ঘোষণা করা হয়। ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে এই দাম ঘোষণা করেন বিইআরসির চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল। এ সময় সচিব খলিলুর রহমান খান, সদস্য মোকবুল-ই ইলাহি, আবু ফারুকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ডিসেম্বর মাসের জন্য সৌদি আরামকোর প্রোপেন ও বিউটেনের ঘোষিত সৌদি সিপি (কন্ট্রাক্ট প্রাইস) যথাক্রমে প্রতি মেট্রিক টন ৬৫০ মার্কিন ডলার এবং ৬৫০ মার্কিন ডলার। জানুয়ারি মাসে তা কমে যথাক্রমে ৫৯০ এবং ৬০৯ ডলার হয়েছে।

 

কমিশনের চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল বলেন, গত মাসের তুলনায় আন্তর্জাতিক বাজারে এলপিজির দাম কমেছে। ১৬টি প্রতিষ্ঠানের এলসি সেটেলমেন্টের ভিত্তিতে ডলারের দাম ধরা হয়েছে ১০৫ টাকা ৬৩ পয়সা, ডিসেম্বরে ছিল ১০৫ টাকা ২২ পয়সা।

এদিকে জানুয়ারি মাসের জন্য অটোগ্যাসের দাম লিটারপ্রতি ৫৭ টাকা ৪১ পয়সা নির্ধারণ করেছে কমিশন, যা গত মাসে ছিল ৬০ টাকা ৪১ পয়সা। সে হিসেবে কমেছে ৩ টাকা। বাসাবাড়িতে কেন্দ্রীয়ভাবে ব্যবহারকারীদের এলপিজির দামও কমেছে। রেটিকুলেটেড এলপিজি গ্যাসীয় অবস্থায় ডিসেম্বর মাসেপ্রতি লিটারের দাম ছিল ২৩ পয়সা। এবার তা দশমিক এক পয়সা কমিয়ে করা হয়েছে ২২ পয়সা।

সবচেয়ে বেশি কমেছে ৪৫ কেজি সিলিন্ডারের দাম, প্রায় ২৪৩ টাকা। একইভাবে কমেছে অটোগ্যাসের দামও। তবে সরকারি পর্যায়ে সাড়ে ১২ কেজি সিলিন্ডারের দামের পরিবর্তন হয়নি। সেটি আগের দাম ৫৯১ টাকাই রয়েছে।

আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্য রাখতে সৌদি আরামকো কম্পানির প্রপেন ও বিউটেনের দামের সঙ্গে সমন্বয় করে প্রতি মাসে এলপিজির মূল্য ঘোষণা করে আসছে বিইআরসি। গত বছর ১২ এপ্রিল দেশে প্রথমবারের মতো এলপিজির দাম নির্ধারণ করে বিইআরসি। তার পর থেকে প্রতি মাসে একবার দাম সমন্বয় করা হচ্ছে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.