স্ত্রী হত্যার ১৭ বছর পর বিমানবন্দরে স্বামী গ্রেপ্তার

স্ত্রী হত্যার ১৭ বছর পর দেশ ছেড়ে পালানোর সময় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গতকাল শনিবার দুপুরে গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার দিবাগত রাতে দেশ ছেড়ে পালানোর সময় ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

গ্রেপ্তারকৃত আসামির নাম মহিন উদ্দিন মহিন (৪৪)। তিনি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার একলাশপুর ইউনিয়নের পূর্ব অনন্তপুর গ্রামের কাজী বাড়ির গোলাপ রহমান চৌধুরীর ছেলে। ২০০৫ সালে স্ত্রী প্রথমা আক্তার পলিকে হত্যার পর গত ২০২২ সালের নভেম্বরে আদালত মহিন উদ্দিনকে মৃত্যুদণ্ড দেন।

পুলিশ জানায়, গত ২০০৫ সালে স্ত্রী প্রথমা আক্তার পলিকে হত্যার অভিযোগ ওঠে স্বামী মহিন উদ্দিন মহিনের বিরুদ্ধে। ঘটনার পর পালিয়ে যান মহিন। এ ঘটনায় ২০০৫ সালের ২ সেপ্টেম্বর বেগমগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করে নিহতের পরিবার। স্ত্রী হত্যায় তাঁর স্বামী মহিনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা।

গত বছরের ২৭ নভেম্বর আসামির অনুপস্থিতিতে সাক্ষীদের সাক্ষ্যগ্রহণের পর আদালত মহিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাঁকে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করেন। রায় ঘোষণার পর তাঁকে গ্রেপ্তারে নামে বেগমগঞ্জ মডেল থানা-পুলিশ। এদিকে ফাঁসির রায়ের পর তিনি দেশ থেকে পালানোর চেষ্টা করছেন—এমন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার দিবাগত রাতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অভিযান চালিয়ে মহিনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি, গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.