যেসব লক্ষণে বুঝবেন ফুসফুস জটিল রোগে আক্রান্ত

ফুসফুস শরীরের অন্যতম এক গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। ফুসফুস বাতাস থেকে অক্সিজেন টেনে রক্ত প্রবাহে পরিবহন করে। একই সময়ে, তারা শরীরের অভ্যন্তরে উৎপন্ন কার্বন ডাই অক্সাইডকে শরীর থেকে বের করে দিতে সহায়তা করে।

রক্তে অক্সিজেন বহন করা ছাড়াও ফুসফুসের আরও অনেক কাজ আছে। ফুসফুস শরীরের পিএইচ এর ভারসাম্য বজায় রাখে। শরীরে সংক্রমণ-সৃষ্টিকারী অণুজীবের আক্রমণের সঙ্গে সঙ্গে ফুসফুসে উপস্থিত মিউকোসিলিয়ারি ক্লিয়ারেন্স তা দূর করে।

তবে যদি ফুসফুসে খুব বেশি চাপ পড়ে ও ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া বা ভাইরাসের আক্রমণ ঘটে, তাহলে ফুসফুস দুর্বল হতে শুরু করে। এজন্য সময়মতো ফুসফুসের স্বাস্থ্যের দিকে মনোযোগ দেওয়া জরুরি।

বেশিরভাগ মানুষই কর্মব্যস্ত জীবনে বুকে ব্যথা বা সামান্য কাশি বা শ্বাসকষ্টকে সাধারণ ভেবে অবহেলা করেন। তবে এটি ফুসফুসের ক্ষতির প্রথম লক্ষণ হতে পারে।

এ কারণে সবারই জেনে রাখা উচিত শরীরে কোন কোন লক্ষণ দেখলে বুঝবেন যে আপনি ফুসফুসের সমস্যায় ভুগছেন-

দীর্ঘস্থায়ী কাশি

আমেরিকান লাং অ্যাসোসিয়েশনের ওয়েবসাইট অনুসারে, কেউ যদি ৮ সপ্তাহের বেশি সময় ধরে ঠান্ডা বা কফের সমর্স্যায় ভোগেন, তাহলে বুঝতে হবে এটি দীর্ঘস্থায়ী কফ। দীর্ঘস্থায়ী কাশি ফুসফুসের ক্ষতির প্রথম লক্ষণ হতে পারে। এটা উপেক্ষা না করে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

শ্বাসকষ্ট

কোনো কাজ করার সময় শ্বাসকষ্ট হলে তা ফুসফুসের ক্ষতির লক্ষণ হতে পারে। আপনার যদি ক্রমাগত শ্বাস নিতে সমস্যা হয় তবে এটিকে কখনই হালকাভাবে নেবেন না।

ক্রনিক মিউকাস

মিউকাস ফুসফুসের সুরক্ষা বা বাহ্যিক আক্রমণ প্রতিরোধের উদ্দেশ্যে শ্লেষ্মা তৈরি হয়। তবে যখন এটি খুব বেশি হয়ে যায় ও একমাস বা তার বেশি সময় ধরে বুকে বিরক্ত করে, তখন এটি ফুসফুসের রোগের লক্ষণ হতে পারে।

শ্বাসকষ্ট

শ্বাস-প্রশ্বাসে কষ্ট হওয়া বা শব্দ হওয়ার লক্ষণ কিন্তু মোটেও সুবিধার নয়। ফুসফুসের শ্বাসনালি সরু হয়ে যাওয়ার লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। এমনটি ঘটলে সতর্ক থাকুন দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

কাশি সঙ্গে রক্ত পড়া

কাশির সঙ্গে রক্ত পড়া ফুসফুসের রোগের প্রধান লক্ষণ। রক্ত যেখান থেকে আসুক না কেন, এই লক্ষণ হতে পারে মারাত্মক। এমনকি ফুসফুস ক্যানসারেরও লক্ষণ হতে পারে এটি।

বুকে ব্যথা

বুকে ব্যথা যদি এক মাস বা তারও বেশি সময় ধরে থাকে, বিশেষ করে যখন আপনি কাশি বা শ্বাস নিচ্ছেন, এটি ফুসফুসের গুরুতর রোগের লক্ষণ হতে পারে। এসব লক্ষণ দেখলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে দ্রুত।

সূত্র: প্রেসওয়ার ১৮

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.