নারায়ণগঞ্জে পাসপোর্ট দালাল চক্রের ১৪ সদস্য গ্রেফতার

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থেকে পাসপোর্ট দালাল চক্রের ১৪ সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে র‌্যাব-১১ এর মিডিয়া কর্মকর্তা মো. রিজওয়ান সাঈদ জিকুর স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় সাইনবোর্ডের সামাদ বানু ভবনের দ্বিতীয় তলায় মা ডিজিটাল কালারল্যাব নামের দোকান এবং তৃষা আদর্শ করপোরেশন মার্কেট এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এসময় তাদের নিকট থেকে ২২টি পাসপোর্ট, পাসপোর্ট ডেলিভারি স্লিপ ৪৮৭ কপি, এনআইডি কার্ড ১৯টি, রাবার সিল ৮টি, মোবাইল ফোন ২০টি এবং ৩১টি সিম উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- নড়াইলের লোহাগড়ার পাংখারচর এলাকার আব্দুল মান্নানের ছেলে মো. মুকুল মোল্লা (৩০), চাঁদপুরের মতলবের গাবুয়া এলাকার মো. সোলায়মানের ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম (২৮), সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি এলাকার মৃত হাসান আলীর ছেলে মো. রাকিব (২৫), একই জেলার সোনারগাঁয়ের বাঘরি এলাকার মো. ফজলুল হকের ছেলে মো. আলমগীর (৩২), মঙ্গালেরগাঁও এলাকার মো. আলী মিয়ার ছেলে মো. মফিজুল (৩৫), বন্দরের একরামপুর উইলসন রোড এলাকার মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে মো. শফিকুল ইসলাম (৪৫), ফতুল্লার আল্লামা ইকবাল রোড এলাকার মৃত আবুল কাশেমের ছেলে মো. জাহিদ (৪৫), পটুয়াখালির গলচিপা পূর্বপাড় ডাকুয়া এলাকার মো. আমিন সিকদারের ছেলে মো. নবীন (১৮), মাদারীপুরের ঝিকুর হাটি এলাকার মৃত আলাউদ্দিন খানের ছেলে মো. শফিকুল ইসলাম রানা (৩৫), নোয়াখালীর সোনাইমুড়ির শিমুলিয়া এলাকার মো. শাহজাহানের ছেলে মো. সাখায়েত উল্লাহ (৩০), বরিশালের বানারির সোনাহাট এলাকার মৃত দেলোয়ার সিকদারের ছেলে মো. ইমরান হোসেন সুজন (৩৪), নীলফামারীর সৈয়দপুরের গার্ডপাড়া এলাকার মো. গিয়াস উদ্দিন আহমেদের ছেলে মো. সিরাজ উদ্দিন সাজু (৩৯), লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জের নান্দিয়ারা এলাকার মৃত আমিন উল্লাহর ছেলে হাসান ইকবাল (৩৬) ও কিশোরগঞ্জের তারাইলের কাজলা এলাকার মৃত সিরাজুল ইসলামের ছেলে মো. সজিব (৩২)।

মো. রিজওয়ান সাঈদ জিকু জানান, গ্রেফতাররা দীর্ঘদিন ধরে পরস্পর যোগসাজশে বিভিন্নজনের কাছ থেকে পাসপোর্ট তৈরি করে দেওয়ার নাম করে টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসছিল। জব্দ ফোন দিয়ে বিভিন্ন লোকজনের সঙ্গে দালালির মাধ্যমে পাসপোর্ট তৈরি করে টাকা হাতিয়ে নেন। মামলা দিয়ে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.