বিএনপির এখনো নির্বাচনে আসার সুযোগ আছে : কাদের

বিএনপির অনেকেই নির্বাচনে আসার প্রস্তুত নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী  ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি আসবে না, এ কথা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। বিএনপির নির্বাচনে আসার এখনো সুযোগ আছে। হয়তো দলগতভাবে না আসতে পারে। কিন্তু তাদের ভেতর থেকে প্রার্থী হিসেবে অনেকেই অংশ নেওয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন, আমাদের কাছে এমন খবর আছে।’

আওয়ামী লীগের সসংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভা শেষে শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) বিকেলে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকেদর প্রশ্নের জবাবে তি এই কথা বলেন।

কাদের বলেন, শনিবার বা রবিবারের মধ্যে দলের মনোনীত প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা ঘোষণা করবে আওয়ামী লীগ। একসঙ্গে ৩০০ আসনের প্রার্থী ঘোষণা করা হবে।

বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান এখন থেকে রাজনীতি করবেন জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এমনটি দলকে বলা হয়েছে। বাংলাদেশের যেকোনো আসন থেকে তিনি মনোনয়ন পেতে পারেন।

এলাকায় যাদের গ্রহণযোগ্যতা, জনপ্রিয়তা কম তাদের মনোনয়ন দেওয়া হচ্ছে না বলে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘যারা জিততে পারবেন, তাদের আমরা বাদ দেইনি। যাদের জেতার সম্ভাবনা বেশি, পুরুষ হোক বা নারী, তাকে মনোনয়ন দেয়া হবে।’

কাদের বলেন, বিএনপি আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করার জন্য নেমেছে। চোরাগোপ্তা হামলা চলছে। গাড়ি পোড়াচ্ছে। এসব অপকর্ম তারা করছে। এসব কতক্ষণ চালাবে। চোরাগোপ্তা হামলা করে নির্বাচন ভণ্ডুল করা যাবে না।

গত অক্টোবর মাসের শেষে বাংলাদেশের বিরোধী দলের সদস্যদের সঙ্গে মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস বৈঠক করেন। বৈঠকে তিনি সরকারবিরোধী র‌্যালি করার পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া যাখারোভা। সে বিষয়ে জানতে চাইলে কাদের বলেন, ‘আমাদের দেশের নির্বাচনের ব্যাপারে বহিঃশক্তির কারো মন্তব্য আমরা স্বাগত জানাচ্ছি না। আমাদের ইলেকশনকে কেন্দ্র করে শক্তিধর দেশ একে অপরকে মন্তব্য করবে আমরা এর সাথে শরিক হতে চাই না।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জানান, আজকে (শুক্রবার) আরো দুটি বিভাগে আওয়ামী লীগের মনোনয়প্রত্যাশী চূড়ান্ত করা হয়েছে। আমরা একসঙ্গে তালিকা প্রকাশ করব। সেটি আগামীকাল বা পরশু দিকে হতে পারে।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের মনোনয়ন চূড়ান্ত করেছে দলটি।

কাদের জানান, নির্বাচনের দৌড়ে বাদ পড়ছেন আওয়ামী লীগের বর্তমান কিছু সংসদ সদস্যও। অন্যদিকে এগিয়ে আছেন বয়সে তরুণ ও জনগণের কাছে অপেক্ষাকৃত জনপ্রিয় ব্যক্তিরা। এছাড়া জোট এবং বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত পরে নেওয়া হবে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.